ডেস্ক: ভারতের তরফে দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসা হচ্ছিল করাচিতে আইএসআইয়ের নিরাপত্তায় রয়েছে আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিম। তবে তা সম্পূর্ণরুপে অস্বীকার করে গিয়েছে পাকিস্তান। তবে এবার একটি অডিও টেপ বার্তার তদন্তে নেমে দেখা গেল ভারতের দীর্ঘদিনের দাবিই সত্যি, করাচিতে পাকিস্তানি নিরাপত্তার ঘেরাটোপে বহাল তবিয়তে রয়েছে দাউদ।

জানা গিয়েছে, ডন দাউদের এইমুহূর্তে বিভিন্ন ব্যবসার সঙ্গে সঙ্গে তার প্রধান ব্যবসা হল রিয়েল এস্টেট ব্যবসা। ইয়াসিন নামের এক এজেন্টের সঙ্গে তার ব্যবসায়িক আলাপচারিতার কথোপকথন প্রকাশিত হয়েছে যা ট্যাপ করে দেখা গিয়েছে, করাচিতেই দাউদের বর্তমান ঘাঁটি। দুবাইতে তার ব্যবসার পরিপ্রেক্ষিতে ইয়াসিরের সঙ্গে যে কথোপকথন প্রকাশিত হয়েছে তা কিছুটা এইরকম। ইয়াসির দাউদকে জানায়, ‌’প্রত্যেকদিন এখানে অনেকে খোঁজখবর করতে আসেন। ইতিমধ্যেই সাতটি বিল্ডিং বিক্রি হয়ে গিয়েছে। তার মধ্যে সম্প্রতি হয়েছে তিনটি। আর ৬টি বিল্ডিং বিক্রির কথাবার্তা চলছে।’ এরপর ইয়াসির বলে, ‘‌আমি ইরফানকে বলে দিয়েছি দুবাইয়ের জমি দপ্তর থেকে ফোন পেয়েছি।’ এরপর দাউদ ইয়াসিরকে জিজ্ঞাসা করে, ‘এখন বাজারের কি অবস্থা?’ তার উত্তরে ইয়াসির জানায়, ‘সব ঠিক আছে। বাজারের অবস্থাও ভালো’। ব্যবসা সংক্রান্ত এমনই কিছু কথোপকথন ধরা পড়েছে দাউদ ও তার ব্যবসায়িক এজেন্ট ইয়াসিরের মধ্যে। আর এই ফোন ট্যাপের মাধ্যমেই জানা যায় করাচিতে ক্লিফটন জেলার একটি বাড়ি থেকেই এই কথোপকথন চালিয়েছে মুম্বই বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত দাউদ।

তদন্তে জানা গিয়েছে দাউদ পাকিস্তানে থাকলেও দাউদের ডি কোম্পানির ব্যবসা দেশ–বিদেশে ছড়িয়ে দিতে যুক্ত রয়েছে সন্ত্রাসবাদী এবং নারকোটিক্স সরবরাহকারীরা। বহু বছর ধরেই তারা এই কাজ করে আসছে। দুবাইতে তার বেনামে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা রয়েছে। এছাড়াও উপমহাদেশগুলিতেও রমরমিয়ে ব্যবসা করে চলেছে ডন দাউদ। এই মুহূর্তে তার সম্পত্তির পরিমান ছশো সত্তর কোটি টাকা। তবে এই অডিও টেপবার্তার দাউদের পাকিস্তানে থাকার যে প্রমান ভারত পেয়েছে তা বোধহয় আর অস্বীকার করতে পারবে না পাকিস্তান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here