ডেস্ক: টানা বেশ কয়েকদিন ধরে একটু একটু করে দাম বাড়ছিল পেট্রোল-ডিজেলের। শনিবার পেট্রোপণ্যের দাম মধ্যবিত্তের ধরাছোঁয়ার বাইরে। শনিবার কলকাতায় পেট্রোলর দাম ০.১৪ পয়সা বেড়ে হল লিটার প্রতি ৮০.৬১ পয়সা। পেট্রো পণ্যের ওপর জিএসটি চালু হলে হয়তো স্বস্তির নিঃশ্বাস পড়বে জনগণের। কারণ,অর্থনীতিবিদের বক্তব্য অনুসারে জি এস টি চালু হলে অনেকটাই কমতে পারে পেট্রোল, ডিজেলর দাম। ২০১৪ সালের নভেম্বর থকে ২০১৬ সালের জানুয়ারির মধ্যে, ৯ দফায় পেট্রোলের দাম ১১.৭৭ টাকা ও ডিজেলর দাম ১৩.৪৭ টাকা বাড়ায় তা বারবার মোদী সরকারকে বিড়ম্বনায় ফেলছে।
একদিকে করের বোঝা, অন্যদিকে এই পেট্রোপণ্যর মূল্য বৃদ্ধিতে নাজেহাল সাধারণ মানুষ। সকলের বক্তব্য, পণ্যর দাম কমে যদি কর বাড়ে, তাহলে দাম বাড়লে কর কমবে না কেন? এই প্রশ্নের আজ মুখোমুখি হতে হচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারকে। যদিও ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে সাংবাদিক সম্মেলনে প্রায় দেখা যায় না বললেই চলে। যদিও এই কর কমানোর বিষয়ে এখন ও কেন্দ্রীয় সরকার মুখে কুলুপ পেতে রেখেছে । ২০১৭ সালে ইন্ডিয়ান বাস্কেট ক্রুডের দাম ছিল ব্যারেল প্রতি প্রায় ৪০ ডলারের কম, যা আশঙ্কা করা হচ্ছে খুব দ্রুত ২০২০ সালে ব্যারেল প্রতি ১০০ ডলার হয়ে যাবে। পেট্রোল ডিজেলর উপর লিটার পিছু ১ টাকা কমালে সরকারের কর সংগ্রহ কমে যাবে ,তার ফলে টান পড়তে পারে কেন্দ্রের পুঁজিতে। তবে কি সাধারণ মানুষকে সরকার কোপে এভাবেই বলি হতে হবে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here