kolkata news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এতদিন ট্রেন না পেয়ে পায়ে হেঁটে বাড়ি ফেরার সময় মারা যাচ্ছিলেন অসংখ্য শ্রমিক। বর্তমানে বিশেষ শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে তাদের বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করা হলেও সেই ট্রেন নিয়েও অসন্তোষ। ঠিক মতো খাবার, জল দেওয়া হচ্ছে না শ্রমিকদের। ফলে অনেক শ্রমিক ট্রেনের মধ্যেই প্রাণ হারাচ্ছেন। কিন্তু ট্রেনের মধ্যে শ্রমিকদের মারা যাওয়াকে ছোট্ট ও ব্যতিক্রমী ঘটনা বলে দাবি করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

অত্যধিক গরম, খাবার ও জলের অভাব সহ একাধিক কারণে গত সোমবার থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনের মধ্যেই এক শিশু সহ মোট নয়জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সেই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘কিছু দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ঘটেছে। তবে এর কারণে রেলকে দোষী করা ঠিক নয়। রেলের পক্ষ থেকে যথাসাধ্য চেষ্টা করা হচ্ছে। কিছু মানুষ মারা গিয়েছেন। এগুলি ছোট, ব্যতিক্রমী ঘটনা।’

স্বাভাবিক ভাবেই বিজেপি নেতার এই মন্তব্যের সমালোচনায় সরব হয়েছে তৃণমূল ও সিপিএম। রাজ্যের শাসক দলের সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘করোনা সংক্রমণ রোখা ও লকডাউন নিয়ে কেন্দ্রের ব্যর্থতার ফলেই শ্রমিকদের এত সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। কত মানুষ মারা যাচ্ছেন আর বিজেপি নেতাদের ভাব এমন যেন কিছুই হয়নি। আমাদের দিকে আঙুল তোলার আগে দিলীপ ঘোষের আরও সংযত হয়ে কথা বলা উচিত।’

বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে একহাত নিয়েছেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিমও। ‘বিজেপি নেতাদের কাল্পনিক জগতেই সব ঠিক হচ্ছে। কিন্তু ওনারা দেশ সামলাতে পুরোপুরি ব্যর্থ। পরিযায়ী শ্রমিকদের এই দুর্দশা প্রমান করে দেয় যে মোদী সরকারের কাছে সাধারণ মানুষের প্রাণের মূল্য নেই। মহামারী সামলাতে ব্যর্থ কেন্দ্র ও বিজেপি নেতাদের এর জন্য লজ্জিত হওয়া উচিত’, বলেন মহম্মদ সেলিম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here