ডেস্ক: উত্তরভারত জুড়ে দলিত আন্দোলনকে কেন্দ্র করে এখনও অব্যাহত রক্তবন্যা। তপশিলি জাতি ও উপজাতিদের নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নতুন বদলে নিজেদের ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে রাস্তায় বিক্ষোভে নেমেছেন দলিতরা। আন্দোলনে অশান্তির জেরে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১০, আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি অগণিত মানুষ। হিংসার ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কয়েক কোটি টাকার সরকারি ও বেসরকারি সম্পত্তির ক্ষতি হয়েছে।

অন্যদিকে, তপশিলি জাতি ও উপজাতিদের নিয়ে মামলার পুনর্বিবেচনার শুনানিতে রাজি হয়েছে শীর্ষ আদালত। দিল্লি সূত্রে খবর, আজ দুপুর দুটোর সময় মামলাটির শুনানি করবে সুপ্রিম কোর্ট। অন্যদিকে, দলতিদের এই বিক্ষোভে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গতকাল টুইটারে তিনি লেখেন, ‘আমাদের দলিত ভাই বোনদের মৃত্যুর ঘটনায় আমি শঙ্কিত এবং মর্মাহত। আমরা তাদের দাবিকে সমর্থন করি। সকলের কাছে শান্তি রাখার আবেদন জানাচ্ছি।’

১৯৮৬ সালে তপশিলি জাতি ও উপজাতি সংক্রান্ত আইনে কিছু বদল এনে মার্চ মাসের শেষের দিকে নতুন নির্দেশ দেয় আদালত। কিন্তু এই বদলের সিদ্ধান্তে নারাজ দলিতরা এরপর ভারত বনধের ডাক দেয়। শুরু হয় বিক্ষোভ সহ আন্দোলন। উত্তরপ্রদেশ, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশের মতো রাজ্যেই মৃত্যু হয়েছে সকলের। নিরব মোদী থেকে শুরু করে তথ্য পাচার মামলার মতো একাধিক কাণ্ডে জেরবার হয়ে থাকা কেন্দ্রীয় সরকারের চাপ আরও বাড়াচ্ছে দলিত বিক্ষোভ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here