bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বলিউডে এখন রণবীর সিং-এর কেরিয়ার সপ্তমে রয়েছে। এতদিনের বলি কেরিয়ারে তাঁর অভিনীত সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র হল ‘আলাউদ্দিন খিলজি’। সঞ্জয় লীলা বনশালির ‘পদ্মাবত’ সিনেমাতে এই খল চরিত্রটি রণবীরের জীবনে অন্যতম কঠিনতম বলে বারবার দাবি করেন অভিনেতা। কিন্তু এদিন রণবীর দাবি করেছেন আলাউদ্দিন খিলজির চরিত্রে তিনি প্রথমে অভিনয় করতে রাজি হননি। সঞ্জয়কে মুখের উপর না বলে দিয়েছিলেন, এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, ”চরিত্রটা খুবই ডার্ক ছিল, একটা আলাদা সাইকোলজিক্যাল বার্তা ছিল চরিত্রে। ভয়ানক, নির্মম একজন মানুষ যার অভিনয় করা খুবই কঠিন। তাই সঞ্জয় স্যারকে আমি অনুরোধ করি, এটা করতে পারব না। আলাউদ্দিন খিলজি আমার দ্বারা অভিনয় করা সম্ভব নয়, কীভাবে নিজেকে দাঁড় করাব? কীভাবে নিজের মানসিকতা এত হিংস্র ও ভয়ানক বানাবো। তখন আমি মানসিকভাবে প্রস্তুত ছিলাম না খিলজি করার মতো। খুব খুশি ছিলাম তখন, কারণ দীপিকা আর আমি বিয়ে করব বলে ঠিক করেছি তখন। চারিদিকে কেনাকাটা, বিয়ের প্ল্যানিং চলছে, তাই মানসিকভাবে খুবই খুশি থেকে এই চরিত্র করা যায় না।”

তিনি আরও জানান কীভাবে এই চরিত্রে আসেন। রণবীর জানিয়েছেন, ”আমার স্পষ্ট মনে আছে, সঞ্জয় স্যারের ব্যালকোনিতে দাঁড়িয়ে মাছ খাচ্ছি, এবার বাড়ি যাব। উনি মাথা গরম করে ফেলেছেন, রাগে আমার সঙ্গে কথাই বলতে চাইছেন না। চারিদিকে খাবার-দাবার ফেলে দিয়ে বাচ্চাদের মতো আচরণ করছিলেন, উনি বারবার বলছিলেন তুমি একটা ঐতিহাসিক চরিত্রকে কেন ছেড়ে দিচ্ছো? আলাউদ্দিন খিলজির মতো চরিত্র জীবনে পাবে না যার, মাত্র ৭৫ কিলো ওজন তাঁর। এত রাগ আর সঞ্জয় স্যারের মুখের দিকে তাকিয়ে, তখনই হ্যাঁ বলে দিয়েছিলাম আলাউদ্দিন খিলজির জন্য।”

‘পদ্মাবত’ সিনেমার মুক্তির পর বলিউডে রণবীরের আলাউদ্দিন খিলজির ভূমিকায় পঞ্চমুখ হন অনেকেই। সমালোচক থেকে দর্শক সকলেই রণবীরের অভিনয় নিয়ে প্রশংসার রাস্তা বেঁধে দেন। রণবীর আপাতত ব্যস্ত তাঁর আগামী সিনেমা ‘৮৩’ নিয়ে। কবীর খানের পরিচলানায় ১৯৮৩ বিশ্বকাপ ও কপিল দেবের জীবনি ফুটে উঠবে বড়পর্দায়। এছাড়াও তাঁর হাতে রয়েছে করণ জোহারের ‘তখত’ ও ‘জয়সভাই জোরদার’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here