kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একসময়ে মানসিক অবসাদের ভুগেছিলেন দীপিকা পাডুকোন। ডিপ্রেশান নিয়ে তাঁকে একাধিকবার কথা বলতেও দেখা গিয়েছে। তিনি বলেন, এই বিষয় নিয়ে কেউ কথা বলতে পছন্দ করেন না। এমনকি এটিকে রোগ হিসেবে দেখা হয়, যা একেবারেই ভুল। মানসিক অবসাদে ভুগেছিলাম কিন্তু তা নিয়ে কথা বলতে একটুও দ্বিধাবোধ করি না।তবে এবার অভিনেত্রীর ‘লিভ লাভ লাফ’ ফাউন্ডেশনকে বিশেষ সম্মানে ভূষিত করা হল।গত শুক্রবার বেলজিয়ামে এই সংস্থাকে ব্রেকিং দ্য চেইনস অব স্টিগমা অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করা হয়েছে।

শুধু বিদেশেই নয়, দেশের মধ্যেও এই সংস্থা প্রশংসা কুড়িয়েছে। মানসিক অবসাদের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়কে তুলে ধরার জন্য কুর্ণিশ জানানো হয়। বিশ্বের শীর্ষ মানসিক স্বাস্থ্য শিক্ষাকেন্দ্রগুলির মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে দীপিকার ‘লিভ লাভ লাফ ফাউন্ডেশটি। এমনকি এই সংস্থাকে ৫০ হাজার ডলার দেওয়া হতে চলেছে বলে জানা গেছে। এর আগে একাধিক সাক্ষাতকারে মানসিক অবসাদ নিয়ে কথা বলতে দেখা গিয়েছে দীপিকা পাডুকোনকে।

অভিনেত্রী বলেছেন, ‘এই বিষয়টিকে আমি নিজের মতো করে দেখি এবং বলতে চাই, তুমি কে তা একবার ভেবে দেখো। আমি চাই, মানুষ আমার এই সত্য ঘটনাটি জানুক।এরপরে সবাই মানসিক অবসাদ নিয়ে কথা বলবে। কারও কোনও অসুবিধে হবে না। এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া হবে। একবার অন্তত কেউ এই বিষয় নিয়ে ভাবনা চিন্তা করুন। কারণ, সহজেই কেউ মানসিক অবসাদ নিয়ে কথা বলতে চায় না। তারা জিনিসটিকে আড়াল করতে চায়। কিন্তু এখন তা আর হবে না। কেউ যদি সাহস করে এই বিষয় নিয়ে কথা বলেন, তাহলে আমরা প্রত্যেকেই খোলামেলা আলোচনা করতে পারি।’

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here