delhi riots pfi arrested

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘দিল্লির দাঙ্গায় যারা উস্কানি দিয়েছে কাউকে ছেড়ে কথা বলা হবে না’, সংসদে দাঁড়িয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বুধবার দৃপ্ত কণ্ঠে এমনটাই ঘোষণা করেছিলেন। এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই উগ্র মুসলিম সংগঠন পিএফআই-র দুই নেতাকে গ্রেফতার করল দিল্লি পুলিশের স্পেশ্যাল সেল। পুলিশ সূত্রে খবর, গ্রেফতার হওয়া দুই পিএফআই নেতার নাম পারভেজ এবং ইলিয়াস। এই সংগঠনের সভাপতি এবং মুখ্যসচিব এই দু’জন। তাদের গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ সূত্র। উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে দাঙ্গা লাগানোর পিছনে এই দুই ব্যক্তির ষড়যন্ত্র ছিল।

সন্ত্রাসী ও সন্দেহজনক কার্যকলাপের জন্য উত্তরপ্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের মতো একাধিক রাজ্যে পিএফআই নামক এই সংগঠনের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। দিল্লি হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে আগেই এই সংগঠনের মহম্মদ দানিশ নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। শুধু তাই নয়, এই সংগঠনের বিরুদ্ধে অভিযোগ, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী আন্দোলনের জন্য আর্থিক সহায়তাও করেছে তারা। দিল্লিতে সিএএ আন্দোলন চলার সময় সোশ্যাল মিডিয়াকে হাতিয়ার করে দানিশ ভুয়ো খবর ও হিংসা ছড়াচ্ছিল বলে অভিযোগ ওঠে। দিল্লি পুলিশের এফআইআরে ওঠার পরই দানিশের দিকে নজর যায় ইডির।

উত্তরপ্রদেশ সহ দেশের অন্যান্য রাজ্যে হিংসা ছড়ানোর উদ্দেশ্যে পিএফআই নামক এই উগ্র সংগঠন বেশ কিছু আর্থিক লেনদেন করে বলে ইডির প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে। সিএএ বিরোধী প্রতিবাদ–আন্দোলন চলাকালীন পিএফআই সদস্যদের বিভিন্ন অ্যাকাউন্টে কোটি কোটি টাকা জমা পড়ে। সূত্রের খবর, এই টাকাগুলি প্রথমে অল্প পরিমাণে খরচ করা হয় এবং পরে তা হিংসাত্মক ঘটনা ঘটানোর জন্য ব্যবহার করা হয়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here