delhi violence
Highlights

  • দিল্লি সংঘর্ষে এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৮
  • মঙ্গলবার দুপুর দু’টোর পর থেকে দিল্লির ভজনপুরায় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটে
  • ৩৭ কোম্পানি আধাসেনা মোতায়েন করা হয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দিল্লিতে হিংসা কম হওয়ার কোনও ধরনের লক্ষ্মণ দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না। পুলিশ কোনও ভাবেই অশান্তি নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছে না। ফলে দফায় দফায় সংঘর্ষ বেঁধেই চলেছে। ১৪৪ ধারা লাগু থাকা সত্ত্বেও সোমবার ফের একবার দিল্লির বেশ কিছু জায়গায় পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটে। যার ফলে আরও এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। দিল্লি সংঘর্ষে এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ৮।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার দুপুর দু’টোর পর থেকে দিল্লির ভজনপুরায় দুই গোষ্ঠীর মধ্যে পাথর ছোড়ার ঘটনা ঘটে। রড, বাঁশ নিয়ে হামলা চালাতে শুরু করে এক গোষ্ঠী। ফলে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। কিন্তু যখন এই গণ্ডগোল শুরু হয় তখন তল্লাটে পুলিশ দেখতে পাওয়া যায়নি। ফলে সংঘর্ষ ক্রমশ বড় আকার নিতে শুরু করে। বেশ কয়েকটি দোকানে আগুন লাগিয়ে দেওয়ার ঘটনাও ঘটে। এরপর এলাকায় এসে উপস্থিত হয় পুলিশ। সূত্রের খবর, পরিস্থিতি শান্ত রাখতে ৩৭ কোম্পানি আধাসেনা মোতায়েন করা হয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে।

অন্যদিকে দিল্লি সংঘর্ষের জন্য সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি হাবিবুল্লাহ সহ বেশ কয়েকজন ‘সিএএ’ কেই দায়ী করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ, উত্তপ্ত পরিস্থিতির জন্য নতুন আইন দায়ী। শাহিনবাগ বিক্ষোভকারী ও সরকারের মধ্যে মধ্যস্থতা করছেন প্রাক্তন বিচারপতি ওয়াজাহাত হাবিবুল্লাহ। এই নিয়ে ৩ সদস্যের কমিটিও গঠন করা হয়েছিল। মঙ্গলবার আদালত জানিয়েছে, সেই কমিটির রিপোর্টের শুনানি হবে বুধবার। একইসঙ্গে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলারও শুনানি হওয়ার কথা।

দিল্লির পরিস্থিতি নিয়ে সকালেই দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। যেহেতু দিল্লি পুলিশ বা প্রশাসন কোনও টাই দিল্লি সরকারের হাতে নেই, তাই বিষয়টি নিয়ে কিছুই করতে পারছেন না কেজরি। তবে দিল্লিকে স্বাভাবিক করতে সকলে একসঙ্গে কাজ করবে এমনটাই আশ্বাস দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি বলেন, এই প্রসঙ্গে কোনও রাজনীতি হবে না, সকল রাজনৈতিক দল একসঙ্গে মিলে দিল্লিকে শান্ত করার কাজ করবে।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here