Home Latest News বাড়ি খোয়ালেন নাইডু! ভেঙ্গে দেওয়ার নির্দেশ অন্ধ্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী রেড্ডির

বাড়ি খোয়ালেন নাইডু! ভেঙ্গে দেওয়ার নির্দেশ অন্ধ্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী রেড্ডির

0
বাড়ি খোয়ালেন নাইডু! ভেঙ্গে দেওয়ার নির্দেশ অন্ধ্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী রেড্ডির
Parul

মহানগর ওয়েবডেস্ক: অন্ধ্রের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী জগন রেড্ডির নির্দেশে গুড়িয়ে দেওয়া হল অন্ধ্রপ্রদেশ ক্যাপিটাল রিজিয়ান ডেভেলপমেণ্ট নির্মিত প্রজা-বেদিকা, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর সময়কালে প্রস্তুত ৮ কোটির এই ভবনটি ভেঙ্গে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় গত সপ্তাহের প্রশাসনিক আধিকারিকদের বৈঠকে। টিডিপি নেতা ও অন্ধ্রেরে বর্তমান বিরোধী নেতার বাসভবনের নিকটবর্তী স্থানে, কৃষ্ণানদীর তীরে অমরাবতীর এই বাড়িটি ভাঙ্গার কাজ শুরু হয় মঙ্গলবার রাত থেকে।

জগনমোহনের এই সিদ্ধান্তে যথেষ্ট ক্ষুব্ধ চন্দ্রবাবু নায়ডু। তিনি বলেন, “সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করা বোকামি।” এর পরই তাঁর কটাক্ষ, এমন অনেক মূর্তি আছে যেগুলোর কোনও অনুমতিই নেই। শুধু তাই নয়, বেআইনি জমির উপর তৈরি করা হয়েছে সেই মূর্তিগুলো। সেগুলোর ব্যাপারে কি কোনও ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার? এই ঘটনা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই জানিয়েছে তেলুগু দেশম পার্টি। চন্দ্রবাবু নায়ডুর তেলুগু দেশম পার্টি (টিডিপি) যখন রাজ্যের ক্ষমতায় ছিল, সে সময়েই বাড়িটি নির্মাণ করা হয়। নিজের বাসভবনের পাশেই ‘প্রজা বেদিকা’ নামে এই বাড়িটি তৈরি করেছিলেন নায়ডু। এই বাড়ি থেকেই বিভিন্ন প্রশাসনিক কাজকর্ম চালাতেন তিনি। সাংবাদিক বৈঠকও করতেন।

বাড়িটি নির্মাণের সময় নদী সংরক্ষণ আইনও অমান্য করা হয়েছে এবং এটা তৈরির জন্য কোনও টেন্ডার ডাকা হয়নি বলেও অভিযোগ। একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠে আসে যে বাড়ি নির্মাণের খরচ দেখানো হয়েছিল ৫ কোটি টাকা তা কি করে ৮ কোটি ছাড়িয়ে গেল? সরকারের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে একটি লিখিত আর্জি জানিয়ে নাইডু বলেন, প্রজা-বেদিকাকে যেন বিরোধীনেতার বাসভবন হিসাবে ঘোষণা করা হয়। তাঁকে যেন সেখানে থাকতে দেওয়ার অনুমতি দেয় রাজ্যসরকার।

উল্লেখ্য, ক্ষমতায় এসে দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলেছিল , এবার তাদের এহেন পদক্ষেপে সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে। শুধু তাই নয়, প্রশ্ন ওঠে বেআইনি জমির উপর তৈরি হওয়া মূর্তিগুলো। সেগুলোর ব্যাপারে কি কোনও ব্যবস্থা নেবে রাজ্য সরকার? এই ঘটনা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই জানিয়েছে তেলুগু দেশম পার্টি। অন্যদিকে প্রত্যুত্তরে জনসেনা পার্টির সুপ্রিমো বলেন, বাড়িটির জন্য পরিবেশের ক্ষতি হলে তা ভেঙে ফেলাই উচিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here