ডেঙ্গু-আতঙ্ক এবার মালদায়! ১০ জনের দেহে মিলল ডেঙ্গুর জীবাণু

0

নিজস্ব প্রতিবেদক, মালদা: উত্তর ২৪ পরগনা, মেদিনীপুর, মুর্শিদাবাদের পর ডেঙ্গু-আতঙ্ক এবার মালদায়! সমগ্র মালদা জেলা জুড়ে ক্রমশ বাড়ছে অজানা জ্বরের প্রকোপ। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যাও। ইতিমধ্যে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল সহ জেলার ব্লক হাসপাতালগুলিতে অজানা জ্বর নিয়ে ভর্তি হয়েছে বহু রোগী। অনেকের মধ্যে আবার ডেঙ্গুর জীবাণুও পাওয়া গিয়েছে। মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের অধিকর্তা অমিত দাঁ বলেন, ‘এখনও পর্যন্ত মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১০ জন রোগীর রক্তে ডেঙ্গুর জীবাণু পাওয়া গিয়েছে।’ তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেই তাঁর দাবি।

মালদা জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, প্রায় প্রতিদিনই অজানা জ্বর নিয়ে জেলা ও ব্লক হাসপাতালগুলিতে ভর্তি হচ্ছে বহু রোগী। কেবল মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালেই ভর্তি রয়েছে শতাধিক রোগী। যার মধ্যে আট থেকে আশি- সমস্ত বয়সের মানুষই রয়েছে। তবে তার মধ্যে শিশু এবং বয়স্কদের সংখ্যাই বেশি। প্রাথমিকভাবে এদের জ্বরকে ‘অজানা জ্বর’ নাম দেওয়া হলেও এটিকে ‘ভাইরাল ফিভার’ বলেই দাবি জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। তবে স্বাস্থ্য দফতরের দাবি মতো ডেঙ্গুর সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। কেননা বর্তমানে মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১০ জন রোগীর রক্তে ডেঙ্গুর জীবাণু মিলেছে।

সমগ্র জেলাজুড়ে যে ডেঙ্গু আতঙ্ক ছড়িয়েছে, সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন মালদা জেলা পরিষদের জনসাস্থ্য কর্মাধক্ষ্য পায়েল খাতুনও। তিনি বলেন, ‘জেলাজুড়ে জ্বরের প্রকোপ বাড়ছে। তবে আমরা পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছি। ব্লক হাসপাতালগুলিতে পর্যাপ্ত পরিকাঠামো তৈরি রাখা হয়েছে। পাশাপাশি মশা দমনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে এবং জনসচেতনতামূলক প্রচারের মাধ্যমে গ্রামবাসীদের সজাগ করা হচ্ছে। তাদের নিয়মিত স্বাস্থ্যপরীক্ষাও করা হচ্ছে।’ অজানা জ্বর ও ডেঙ্গুর প্রকোপ বাড়লেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রয়েছে বলেই দাবি জানিয়েছেন মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। হাসপাতালেও ডেঙ্গু রোগীদের আলাদা করে সর্বক্ষণ মশারির মধ্যে রাখা হচ্ছে এবং অজানা জ্বরে আক্রান্তদের দিকেও বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের অধিকর্তা অমিত দাঁ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here