ডেস্ক: আর কয়েক ঘণ্টা পরেই লন্ডনে বসতে চলেছে ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার অনুষ্ঠানের আসর। সেরা খেলোয়াড়ের দৌড়ে আছেন মদ্রিচ, রোনাল্ডো ও সালাহ। কদিন আগেই উয়েফা বর্ষসেরার খেতাব জিতেছেন মদ্রিচ। এবার মদ্রিচ ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কারের মঞ্চে মেসি-রোনাল্ডোর একাধিপত্য শেষ করতে পারবেন কিনা তা সময়ই বলবে।

তবে অনেকেই ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কারকে ব্যালন ডি’ওর ভেবে ভুল করে থাকেন। কিন্তু দুটি পুরস্কার এখন সম্পূর্ণভাবে আলাদা। ব্যালন ডি’ওর আসলে ফ্রান্সের একটি ফুটবল ম্যাগাজিন। ২০১০ সালে ফিফার সাথে ১৩ মিলিয়ন ইউরোর চুক্তি হয় ব্যালন ডি’ওরের। ছয় বছরের জন্য হয়েছিল এই চুক্তি। এই ছয় বছর ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কারকে ফিফা ব্যালন ডি’ওর বলা হতো।

কিন্তু ২০১৬ সালের পর সেই চুক্তি আর পুনঃনবীকরণ করেনি ফিফা। তার বদলে শেষ তিন বছর ধরে ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কার চালু করেছে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ামক সংস্থা। সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সাংবাদিক, জাতীয় দলের অধিনায়করা ভোটের মাধ্যমে সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করেন।

অন্যদিকে, ফিফার সাথে চুক্তি শেষের পর ফ্রান্সের ফুটবল ফেডারেশনের তরফ থেকে বর্ষসেরা খেলোয়াড়দের ব্যালন ডি’ওর পুরস্কার প্রদান করা হচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে সাংবাদিকরাই ভোটাভুটিতে অংশগ্রহণ করেন। উল্লেখ্য, ব্যালন ডি’ওরের সাথে চুক্তি হওয়ার আগে ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার ‘প্লেয়ার অফ দ্য ইয়ার’ নামে পরিচিত ছিল।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here