ডেস্ক: ক্রমশ ঘনিয়ে আসছে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ, আর কয়েকঘণ্টা পরেই রাশিয়ার মস্কোয় লুজনিকি স্টেডিয়ামে বসতে চলেছে বিশ্বকাপ ফাইনালের আসর। বিশ্বকাপের ২১ তম সংস্করণে তৃতীয়বার ফাইনাল খেলতে নামছে ফ্রান্স। অন্যদিকে, সবাইকে চমকে দিয়ে তাবড় তাবড় দলগুলিকে পর্যুদস্ত করে ফাইনালের টিকিট জোগাড় করে নিয়েছে ক্রোটরা। সবমিলিয়ে ফাইনাল শুরুর আগে থেকেই বিশ্বের নজর আটকে লুজনিকিতে।

ফাইনালে খেলতে নামার আগে অবশ্য দলের সব ফাঁক ফোঁকর ঢেকে নামতে চাইছেন ফ্রান্সের কোচ দেঁশ। অন্যদিকে, এই বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি সময় খেলেছে ক্রোয়েশিয়াই। ক্লান্তি থাকলেও তাতে আমল না দিয়ে পূর্ণ শক্তি দিয়েই ঝাঁপাবেন রাকিতিচরা। কিন্তু এই মেগা ফাইনালের আগে কয়েকটি বিষয় চিন্তায় রাখছে দুই দলকেই।

ফ্রান্সের রক্ষণ ভাঙতে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে ক্রোটরা

লাগাতার তিন ম্যাচ ধরে অতিরিক্ত সময় পর্যন্ত খেলছে ক্রোয়েশিয়া। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত হার না মানার মানসিকতাই যে তাদে এতদূর পর্যন্ত নিয়ে এসছে তা স্পষ্ট। উমতিতি, ভ্যারান, পাভার্ডদের দিয়ে সাজানো ডিফেন্স ভেঙে মানজুকিজদের গোল করতে যে যথেষ্ট বেগ পেতে হবে তা চোখ বন্ধ করেই বলা যায়। এ বাদেও ফ্রান্সের গোলকিপার হুগো লরিস এই বিশ্বকাপে %A