ডেস্ক: পঞ্চায়েত ভোটে মনোনয়ন জমা উপলক্ষ্যে ক্রমাগত হিংসার অভিযোগে সুপ্রিমকোর্টে মামলা দায়ের করেছিল বিজেপি। সেই মামলার রায়ে এদিনই সুপ্রিমকোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোটে অশান্তি নিয়ে কোন হস্তক্ষেপ করবে না শীর্ষ আদালত। তৃণমূলের পক্ষে যাওয়া এই রায়ে খুব স্বাভাবিকভাবেই খুশি তৃণমূলের শীর্ষ নেতারা। শীর্ষ আদালতের রায়ের পরই এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আদালতের নির্দেশকে স্বাগত জানান তিনি।

সোমবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তাঁরপরেই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘দেশের বিচারব্যবস্থার প্রতি আস্থা আছে আমাদের। নির্বাচন কমিশনার তাঁর অধিকার মতো কাজ করবে।’ একইসঙ্গে বিরোধীদের প্রতি অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, ‘আমজনতা ও দলীয় কর্মীদের ভুল বোঝাচ্ছে বিরোধী নেতারা। যে যে জেলাতে বিক্ষোভ দেখাচ্ছে বিরোধীরা। সেই সমস্ত জেলাতেই প্রচুর মনোনয়ন দিয়েছে বিরোধী প্রার্থীরা। অচথা গণ্ডগোল করছে ওঁরা।’

অন্যদিকে, আদালতের রায়ের পর সাংবাদিকদের সামনে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘সুপ্রিমকোর্ট যারায় দিয়েছে, তা নিশ্চয়ই ভেবে চিন্তে দিয়েছে। এখানে আমাদের কিছু বলার নেই। শীর্ষ আদালতের রায় শিরোধার্য। যেভাবে আমরা মনোনয়ন দিচ্ছি সেই ভাবেই মনোনয়ন দেব আমরা। আজ নির্বাচন কমিশনের কাছে যাব আমরা।’ এদিকে আজই হাইকোর্টে পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে আদালত আবমাননার মামলা দায়ের করেছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরি।

উল্লেখ্য, অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোটের দাবি জানিয়ে ও শাসকদলের বিরুদ্ধে হিংসার অভিযোগ তুলে গত ৫ মার্চ সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় রাজ্য বিজেপি। এদিন এই মামলার শুনানি হয় বিচারপতি আর কে অগ্রবাল ও বিচারপতি অভয় মনোহর সাপ্রের বেঞ্চে। সেখানে সুপ্রিমকোর্ট স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, পঞ্চায়েত ভোট পূর্বে রাজ্যজুড়ে অশান্তির আবহ নিয়ে কোনও হস্তক্ষেপ করবে না তাঁরা। উল্টে নির্বাচন নিয়ে রাজ্য বিজেপির কোনও সমস্যা থেকে থাকলে তা যেন নির্বাচন কমিশনকেই জানায় তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here