kolkata bengali news

Highlights

  • দম আছে তাই বলতে পেরেছি। সুযোগ পেলে করে দেখাব
  • সিদ্ধার্থ শঙ্করের সময় অনেক ভালো ছাত্রকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। সেই আমলের অনেকেই এখন বড় নেতা বা মন্ত্রী। হিংসার রাজনীতি করে উঠে আসা লোকেরা অহিংসার কথা শোনাচ্ছেন
  • বিমান বসুর হরিনাম সংকীর্তন আর রাম নাম জপা ছাড়া উপায় নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: বারবার নিজের বক্তব্য নিয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন দিলীপ ঘোষ। রবিবার সিএএ বিরোধী আন্দোলনের প্রসঙ্গে বলেছিলেন, গুলি করে করে আর কুকুরের মত পিটিয়ে মারা উচিৎ। বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে তাই করা হবে। এই বক্তব্যের পর বিরোধীদের সমালোচনার ও আক্রমণের মুখে পড়েছেন তিনি। তবুও অনড়।

বুধবার সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘বেশ করেছি বলেছি। দম আছে তাই বলতে পেরেছি। সুযোগ পেলে করে দেখাব।’ বুদ্ধিজীবিদের আক্রমণ করে বলেন, সিএএ বিরোধী বুদ্ধিজীবিরা আসলে নন সেন্স। রাষ্ট্রের স্বার্থেই এমন মন্তব্য করেছেন বলেও দাবি বিজেপি রাজ্য সভাপতির। বলেন, সিদ্ধার্থ শঙ্করের সময় অনেক ভালো ছাত্রকে গুলি করে খুন করা হয়েছে। সেই আমলের অনেকেই এখন বড় নেতা বা মন্ত্রী। হিংসার রাজনীতি করে উঠে আসা লোকেরা অহিংসার কথা শোনাচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন গেরুয়া শিবিরের এই দাপুটে নেতা।

দিলীপের গুলি চালানো ও পিটিয়ে মারার বক্তব্যের বিরোধিতা করেছেন সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। সেই প্রসঙ্গে দিলীপ বলেন, সবাই একমত হবে এমন নির্দেশ নেই। ‘রাজ্যে আমি সভাপতি’ বলেই তিনি বলেন, সকলের নার্ভ সমান নয়। তাই সব কিছু সবাই সহ্য করতে পারে না। গণতান্ত্রিক দলে সকলেই সব বলতে পারে বলে বক্তব্য পদ্ম শিবিরের বেলাগাম এই নেতার।

বামেদের কটাক্ষ করে বলেন, সীতারাম ইয়েচুরির সর্দিতে নাকি জাতীয় নেতা তৈরি হয়। কটাক্ষ করে বলেন, এ রাজ্যে কানহাইয়া নেতৃত্ব দেবে নাকি নাকি ঐশী ফিরে এসে নেতৃত্ব দেবে, তার অপেক্ষা। বিমান বসুর হরিনাম সংকীর্তন আর রাম নাম জপা ছাড়া উপায় নেই বলেও কটাক্ষ দিলীপের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here