নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ‘বিমান, বাস পরিষেবায় বেসরকারিকরণ হলে, রেলে না কেন!’ লোকাল ট্রেনের বেসরকারিকরণ প্রসঙ্গে বিরোধীদের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পাল্টা প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার লোকাল ট্রেনের বেসরকারিকরণকে স্বাগত জানান প্রাক্তন কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী মুকুল রায়।

লোকাল ট্রেন তথা রেলের বেসরকারীকরণের বিরুদ্ধে প্রায় একযোগে সুর চড়িয়েছেন রাজ্যের সমস্ত রাজনৈতিক দলগুলি। তাদের কথায়, ‘রেলের মতো গণপরিবহন ব্যবস্থা সরকার কখনোই বেসরকারিকরণ করতে পারেন না। এতে সমস্যায় পড়বেন সাধারণ মানুষ।’ যদিও তাদের কথা মানতে নারাজ রাজ্য বিজেপির সভাপতি। দিলীপ ঘোষের কথায়, ‘বিমান, বাস এই সমস্ত পরিষেবা বেসরকারিকরণ হলে, রেল হবে না কেন। কিছু লোকাল ট্রেন বাড়িয়ে, তা যদি বেসরকারিকরণ করে মানুষের সুবিধা হয় তাহলে সেক্ষেত্রে ক্ষতি কোথায়।’

একইভাবে লোকাল ট্রেনের বেসরকারিকরণকে স্বাগত জানিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায় বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন সবকিছুর জাতীয়করণ হয়েছে। ৭০ এর দশকে দেশজুড়ে জাতীয়করণ নীতি ছিল। বর্তমান সময়ে তা আর নেই। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে ব্যাক্তিগত পুঁজিকে আমি স্বাগত জানাই। আজকের বিশ্বের অর্থনীতির সঙ্গে তালমিলিয়ে বেসরকারিকরণের নীতি গ্রহণ করলে আমি তাকে স্বাগত জানাই।’

প্রসঙ্গত, দ্বিতীয়বার দিল্লির মসনদে বসে রেলের বেসরকারিকরণের দিকে একটু একটু করে এগিয়েছে মোদী দরকার। প্রথমে এক্সপ্রেস ট্রেন বেসরকারির হাতে ছেড়েছে। এবার লোকাল ট্রেন বেসরকারির হাতে ছাড়ছে কেন্দ্র। মোদী সরকারের এমন সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছেন প্রাক্তন রেলমন্ত্রী অধীর চৌধুরী। তিনি জানান, কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত আমরা সংসদে বিরোধীতা করবো। কিন্তু বাংলার আরেক প্রাক্তন রেলমন্ত্রী মুকুল রায় উল্টো পথে হাঁটেন। রেলকে আধুনিক করতে ও মানুষের সুবিধার্তে যে পুঁজি প্রয়োজন, তাকেই স্বাগত জানাতে হবে বলে মত রাজ্য বিজেপির সভাপতি সহ বিজেপির জাতীয় পরিষদের সদস্য মুকুল রায়ের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here