ডেস্ক: শুক্রবার একটি বেসরকারী সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে মুখ্যমন্ত্রী দাবি করেছিলেন, তাঁকে খুনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে৷ শনিবার তারই প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে অন্য রাজ্যে গিয়ে আত্মগোপন করে থাকার পরামর্শ দিলেন রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি রাহুল সিনহা৷

গতকাল ওই সংবাদমাধ্যমে মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন, তাঁকে খুনের চক্রান্ত করা হচ্ছে। তার জন্য সুপারি কিলাররা তাঁর বাড়ি বেস কয়েকবার রেইকি করে গেছে বলেও দাবি করেন তিনি। এদিন শনিবার রাহুলবাবু শ্লেষের ভঙ্গিমায় বলেন, যখনই নির্বাচন আসে তখনই কেউ না কেউ ওনাকে খুনের ষড়যন্ত্র করে। এটা ওনার পুরনো ট্যাকটিস। আসলে নির্বাচন আসলেই ওনার মানুষের সহানুভূতি কুড়োতে হয়৷ তাই এসব খুনের ষড়যন্ত্রের কথা বলে উনি ভোট টানার চেষ্টা করেন৷ তিনি আরও বলেন, মুখ্যমন্ত্রীই তো পুলিশমন্ত্রী৷ তাহলে উনি খুনের ষড়যন্ত্রকারীদের গ্রেফতার করুক৷ আর যদি ষড়যন্ত্রকারীর তথ্যপ্রমাণ হাজির করা না যায়, তাহলে বুঝতে হবে ওনার প্রশাসন ব্যর্থ৷ তিনি প্রশ্ন তোলেন, এরাজ্যে যদি মুখ্যমন্ত্রীরই নিরাপত্তা না থাকে, তবে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা কোথায়? রাহুলবাবুর পরামর্শ, মুখ্যমন্ত্রী যদি নিজের রাজ্যেই নিরাপত্তার অভাব বোধ করে থাকেন, তবে এ রাজ্য ওলার জন্য নিরাপদ নয়৷ উনি এ রাজ্য চেড়ে অন্য রাজ্যে গিয়ে আত্মগোপন করে থাকুক৷ তাহলে উনি কিছুটা নিশ্চিন্তে থাকতে পারবেন৷

মুখ্যমন্ত্রীর এমন দাবিতে ব্যাঙ্গ করতে ছাড়েননি রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষও৷ তাঁর প্রশ্ন, মুখ্যমন্ত্রী যদি জেনেই থাকেন যে ওনার বাড়ি রেইকি করা হয়েছে, তবে তিনি তাঁর পুলিশ দিয়ে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করছেন না কেন? পুলিশ প্রশাসন তো ওনারই৷ ব্যাঙ্গের সুরে তিনি বলেন, সিপিএমের আমলে উনি এসব দাবি করে মানুষের সহানুভূতি কুড়োতেন৷ কিন্তু এখন তো ওনারই জামানা৷ তাই এখন এসব কথা বললে লোকে হাসবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here