নিজস্ব প্রতিবেদক, তমলুক: লোকসভা নির্বাচনে মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বি মানস ভুঁইয়াকে হারিয়ে জয়লাভ করেন দিলীপ ঘোষ৷ মেদিনীপুরের সাংসদ হিসেবে তার কিছু দায়-দায়ীত্ব রয়েছে, যার মধ্যে অন্যতম সাধারণ মানুষের সুবিধা-অসুবিধার কথা শুনে তার সমাধান করা৷ তাই বৃহস্পতিবার মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রের এই সাংসদ মানুষের  সমস্যা শুনতে এগরায় আসেন৷ সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ তাদের অসুবিধার কথা তুলে ধরেন নব নির্বাচিত সংসদের কাছে।

এদিন বিজেপি কর্মীদের গ্রেফতার ও বিজয় মিছিলে লাঠিচার্জ করে বারংবার র‍্যালি ভেস্তে দেওয়া হয়েছে এই অভিযোগ তুলে শাসকদলকে আক্রমণ শানান দিলীপ ঘোষ৷ বললেন, সন্ত্রাস কে করছে নতুন করে বলার দরকার নেই৷ শাসকদল যদি বিজেপি অশান্তি সৃষ্টি করছে বলে অভিযোগ তোলে, তাহলে তো গোটা ভারতবর্ষই অশান্ত হয়ে উঠত, শুধু পশ্চিমবঙ্গেই নয়৷ তা তো হচ্ছে না, দাবি দিলীপের৷ এদিন তৃণমূলের সন্ত্রাসের চর্চা যে গোটা দেশজুড়ে হচ্ছে সে কথাও তুলে ধরেন দিলীপ ঘোষ৷ শাসকদলের স্বৈরাচারি শাসন ঠেকাতে বিজেপি কি পদক্ষেপ নিচ্ছে সেই প্রশ্নের উত্তরে দিলীপ ঘোষের জবাব, তারা গণতান্ত্রিক আন্দোলন করছেন৷ তবে বালুরঘাট-খড়গপুরে বিজয় মিছিল আটকে দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে কাঠগড়ায় তোলেন তিনি৷ তিনি বলেন, তারা রাজ্যে ১৮ টি আসন জিতে সব জায়গায় বিজয় মিছিল করতে চেয়েছে, তাদের মিছিল করতে দেওয়া হয়নি৷ ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে৷

তৃণমূলকে এক হাত নিয়ে তিনি বলেন, রাজ্যে শোকসভা চলছে৷ মানুষকে আনন্দ করতে দেওয়া হচ্ছে না৷ বিজয় মিছিল করার অপরাধে তাকে কেস দেওয়া হয়েছে৷ যে কারণে বালুরঘাট আদালতে তাকে শুক্রবার জামিন নিতে হবে বলেও জানান তিনি৷ কিন্তু তৃণমূলকে এভাবে স্বৈরাচারি চালাতে দেওয়া হবে না বলে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here