kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কাঁথি: ২০২১-এর বিধানসভা ভোটকে পাখির চোখ করে এবার জনসংযোগে মন দিতে চাইছে তৃণমূল। আর এই কাজের জন্য যুবদের কাঁধকেই ভরসা করতে চাইছেন দল। এই প্রেক্ষাপটে করোনা আবহেই যুব তৃণমূলকে দিয়েই শুরু হচ্ছে নতুন কর্মসূচি। যা পুরোটাই ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরের মস্তিষ্কপ্রসূত বলে জানা যাচ্ছে দলের তরফে। সেই লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই রাজ্যের শাসক দল ‘বাংলার যুব শক্তি’ নামে একটি কর্মসূচির সূচনা করেছে। এবার এই যুবশক্তির সদস্যরা মাথাপিছু দশটি পরিবারের দেখাশোনার দায়িত্ব নেবে। শনিবার একটি ভিডিয়ো বার্তার মাধ্যমে এমনটাই জানান তৃণমূল যুব সভাপতি তথা ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূলের এই পদক্ষেপকে এবার কটাক্ষ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। শনিবার তিনি পূর্ব মেদিনীপুরে কাঁথি মহকুমা আদালতে কাঁথি ও জুনপুট থানার পৃথক পৃথক দুটি মামলায় হাজিরা দিতে আসেন। সেখানে তিনি বলেন, ‘চুরির জন্য যোদ্ধা কম পড়েছে। তাই এই সব করছেন তিনি। যোদ্ধারা চাল চুরি করতে ব্যস্ত, করোনা আটকাবে কে?’ এদিন আদালতে হাজিরা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাকে ভালবাসে। তাই প্রতিমাসে এক বার ডাকে আমায়।‘ আগামী বিধানসভা ভোট প্রসঙ্গ তিনি বলেন, ‘ভার্চুয়াল ভোট যদি করা যায় তা ভাবলে ভাল হয়।‘ তার জন্য তিনি নির্বাচন কমিশনকে ভাবতে বলেছেন। বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে এই বিষয় নিয়ে বিবেচনা করা যায় কিনা  দেখুক।

আমফান দুর্নীতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই জেলায় দুই লক্ষ মানুষ আমফান চুরির সঙ্গে যুক্ত। সেখানে সমুদ্রের হিমশৈল ভাসার মতো ২০০ জনকে শো-কজ করে কী হবে? এদিন এগরা বিধানসভার দুই নম্বর ব্লকের তাজপুর বিজেপি কার্যালয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ দলীয় সভা করলেন। উপস্থিত ছিলেন বিজেপি জেলা সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী, সাংসদ প্রতিনিধি আশিস নন্দ। সভায় দিলীপ ঘোষ দলীয় সভাপতি ও দলীয় কর্মীদের মনোবল ও কর্মী সংগঠিত করার আহ্বান জানান। পাশাপাশি তিনি দলীয় সভা থেকে রাজ্যের সাংসদ, বিধায়কদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। বিজেপি সংসদ অর্জুন সিংকে রাজ্য পুলিশ দিয়ে হেনস্থা করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here