ডেস্ক: পঞ্চায়েত ভোট উপলক্ষ্যে ক্রমাগত হিংসার জেরে বহু কেন্দ্রে প্রার্থীই দিতে পারেনি বিজেপি। তা সে প্রার্থীর সংখ্যা কম হোক বা মনোনয়নকে কেন্দ্র করে হিংসাই হোক। রাজ্যের বেশিরভাগ কেন্দ্রে প্রার্থী দিতে না পারার খেদ এবার কিছুটা হলেও ভরাতে চলেছে রাজ্য বিজেপি। আর তার জন্য নয়া কৌশল অবলম্বন করেছে রাজ্যের গেরুয়া শিবির।

বাঁকুড়ার দলীয় সভায় যোগ দিতে এসে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, পঞ্চায়েত ভোটে এবার নির্দল রূপী তৃণমুলের গোঁজ প্রার্থীদের সমর্থন দিয়ে আসন বাড়াবে রাজ্য বিজেপি। যেখানে, যেখানে, বিজেপি আসনে প্রার্থী দিতে পারেনি সেখানে নির্দল প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া হবে বলে জানান তিনি। তবে একইসঙ্গে তিনি এটাও জানিয়ে দেন বিজেপির এই সমর্থন যাবে শুধুমাত্র তৃণমূল বিক্ষুব্ধ, তৃণমুলের গোঁজ প্রার্থীদের সমর্থন করবে বিজেপি। বিরোধী রাজনৈতিক দলের সিপিএম, কংগ্রেসের কোনও প্রার্থীকে সমর্থন করা হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। দিলীপ বাবুর দাবী, ‘রাজ্যে অনেক নির্দল প্রার্থী ইতিমধ্যে সমর্থন চেয়ে যোগাযোগ করছেন। জেলাস্তরে এক্ষেত্রে কোন আপত্তি না থাকলে দল তাঁদের সমর্থন দেবে।’ উল্লেখ্য, রাজ্যের যে সব জায়গায় বিজেপি বা অন্য বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারেনি অথচ নির্দল মনোনয়ন জমা করেছে তাদের সিংহভাগই বিক্ষুব্ধ তৃণমূল। এবার তাদের সমর্থন দিয়ে পাল্টা শাসক দলকে চাপে ফেলতে চাইছে রাজ্যের গেরুয়া শিবির।

অন্যদিকে, রমজান মাসের সময় ভোট প্রসঙ্গে রাজ্য সরকারকে একহাত নেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘২০১৩ সালে রমজান মাসে ভোট হয়েছিল। তখন বিতর্ক ওঠেনি কিন্তু এখন প্রশ্ন উঠছে। আসলে দিদিমনি সংখ্যালঘুদের ভোট হারানোর ভয়ে এসব করছেন।’ তাঁর কথায়, ‘পঞ্চায়েতে শয়ে শয়ে সংখ্যালঘু প্রার্থী দিয়েছে বিজেপি। মুসলিমরা তাদের প্রতি বঞ্চনা টের পেয়ে গিয়েছেন তাই তারা এবার শাসক দলকে ভোট দেবে না। তার জন্যই এখন দিদিমনির এই ছলা কলা’।

উল্লেখ্য, পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে দীর্ঘ জল্পনার পর এদিন পঞ্চায়েত নির্ঘণ্ট প্রকাশ করে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। রাজ্যের প্রস্তাবই মেনে নিয়ে পঞ্চায়েত নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি করে কমিশন জানায়, ভোট গ্রহণ হবে ১৪ মে৷ গণনা হবে ১৭ মে৷ অর্থাৎ, রমজানের আগেই কার্যত ভোট প্রক্রিয়া শেষ করতে চাইছে কমিশন ও রাজ্য সরকার৷ এবং সেই মর্মেই কমিশনকে লিখিত আকারে জানিয়ে ছিল রাজ্য সরকার৷ শেষ পর্যন্ত সেটাই মেনে নিল কমিশন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here