kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ভাঙড়: সল্টলেকের ভাড়াবাড়ি থেকে নিউটাউন লাগোয়া ভাঙড়ের কোচপুকুরের যোতভীমে বিপুলায়তন বাড়িতে থাকছেনন বিজেপির রাজ‍্য সভাপতি তথা সাংসদ দিলীপ ঘোষ। সল্টলেক ছেড়ে ভাঙড়ের মতো মুসলিম অধ্যুষিত এলাকায় বিজেপি’র রাজ‍্য সভাপতির বসবাস করা নিয়ে সাম্প্রদায়িক রাজনীতির গন্ধ অনুধাবন করছে ভাঙড়ের তৃণমূল নেতৃত্ব। ভাঙড়ের তৃণমূল নেতা নান্নু হোসেন বিস্ফোরক অভিযোগ করে বলেন, ৮০ শতাংশ মুসলিম অধ্যুষিত ভাঙড়ে সাম্প্রদায়িক উষ্কানি দিতে আস্তানা গেড়েছেন দিলীপ ঘোষ। জাতিগত বিভেদ সৃষ্টি করার চেষ্টা করতে ভাঙড়ে এসেছেন তিনি।

kolkata news

কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানা এলাকার ভাঙড়ের যোতভীম এলাকায় এখন দিলীপ ঘোষের নয়া ঠিকানা। এই নতুন ঠিকানায় অন্তত ১২টি থাকার ঘর ছাড়াও একাধিক রান্নাঘর, খাবার ঘর এবং একটি বড় বৈঠকখানা আছে বলে জানা গিয়েছে। সোমবার এই ঠিকানায় আসার পরই যোধভীমের পাশেই কোচপুকুরে চা চক্রে হাজির হন দিলীপ ঘোষ। সেখানে তাকে এলাকায় ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে বিক্ষোভ দেখায় তৃণমূল। দুইপক্ষের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি হয়। বিজেপি’র পক্ষ থেকে এই ঘটনায় তৃণমূল নেতা মহসিন গাজি-সহ তিন জনের নামে অভিযোগ দায়ের করা হয়। এই মহসিন গাজি ভাঙড়ের রাজনীতিতে তৃণমূল নেতা নান্নু হোসেনের অনুগামী বলে পরিচিত।

এবিষয়ে এদিন নান্নু হোসেন বলেন, দিলীপ ঘোষ ভাঙড়ে আস্তানা গাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বামনঘাটা অঞ্চলের একমাত্র মুসলিম অধ্যুষিত গ্রাম কোচপুকুরে গিয়ে অশান্তি সৃষ্টি করেছেন। আমাদের দলের তরফে মহসিন তড়িঘড়ি সেখানে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। তার পরেও তৃণমূল নেতা মহসিন-সহ তিন জনের বিরুদ্ধে বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এই পুরো ঘটনার পেছনে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি আছে। নান্নু হোসেন আরও বলেন, ৮০ শতাংশ মুসলিম অধ্যুষিত ভাঙড়ে দিলীপ ঘোষ পায়ে পা দিয়ে ঝামেলা করার চেষ্টা করছেন। জাতিগত বিভেদ সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন। আমরা ভাঙড়ের নেতৃত্ব সজাগ আছি‌। এই ভাঙড় শান্তি ও সম্প্রতির ভাঙড়। কিন্তু আমরা দিলীপবাবুর হুমকি চোখরাঙানি সহ‍্য করব না। তিনি মাস্তানের মতো হুমকি দিয়ে বলেছেন, আবারও তিনি ওই কোচপুকুরে যাবেন, এমনকী তৈরি হয়ে যাবেন। তিনি অবশ্যই যেতে পারেন। কিন্তু দলবল নিয়ে গেলে গ্রামের সাধারণ মানুষ ছেড়ে কথা বলবে না। তখন মহসিন গিয়ে আর পরিস্থিতি সামাল দেবে না। তখন যা হওয়ার তাই হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here