kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোট আসন্ন। আর এই ভোটকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জমে উঠেছে রাজ্য রাজনীতির আসর। রাজ্যের শাসন ক্ষমতা দখল করতে মরিয়া বিজেপি অনেক আগেই নেমে পড়েছে ময়দানে। গেরুয়া শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতারা পালা করে আসছেন এই রাজ্যে। বেশ কয়েকজন বড় মাপের নেতা কয়েক মাস আগে থেকে এরাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ঘাঁটি গেড়ে সংগঠনের কাজ করছেন।

​ভোটের এই আবহে হঠাৎ করেই বেশি প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়েছেন এই রাজ্যের মনীষীরা। স্বামী বিবেকানন্দ, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু থেকে শুরু করে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর- কেউ বাদ নেই। সবাইকে নিয়েই বিভিন্ন কর্মসূচি শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। পিছিয়ে নেই তৃণমূল কংগ্রেসও। শনিবার রাজ্যে পালিত হয়েছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মদিন। আর এই জন্মদিন পালন উপলক্ষে কলকাতায় একাধিক অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নেতাজির বাসভবন ‘নেতাজি ভবনে’ যাওয়ার পাশাপাশি ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল গ্রাউন্ডে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন তিনি। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বক্তব্য রাখার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যখন পোড়িয়ামে ওঠেন, সেই সময়ে ঘটে যায় একটি অপ্রীতিকর ঘটনা। হঠাৎ দর্শকাসন থেকে শুরু হয়ে যায় ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান। বিরক্ত মুখ্যমন্ত্রী বক্তব্য না রেখেই ঘটনার নিন্দা করেন। যা নিয়ে রাজ্য রাজনীতি সরগরম হয়ে ওঠে।

বিভিন্ন মহল থেকে দাবি করা হচ্ছে, ভোটের আবহে নেতাজিকে নিয়ে রাজনীতি করছে বিজেপি। এবার সেই অভিযোগকে মান্যতা দিয়ে স্বীকার করে নিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি সাফ জানিয়েছেন, নেতাজিকে নিয়ে তারা রাজনীতি করবেন।

​রবিবার নদিয়া উত্তরের বিজেপি শিক্ষা সেলের পক্ষ থেকে ধুবুলিয়ায় একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সেখানে বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দিলীপ ঘোষ। এখানে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘নেতাজি রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তাঁকে নিয়ে রাজনীতি করব। কারও বাপের হিম্মত থাকলে আটকাক।‘

​রাজনীতির আঙিনায় মনীষীদের টেনে এনে ফায়দা তোলার চেষ্টার বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিভিন্ন মহল। থেকে বলা হচ্ছে, এভাবে মনীষীদের রাজনীতির ময়দানে টেনে আনা ঠিক নয়। তবে কোনও রাজনৈতিক দল নিজেদের ফায়দার জন্য মনীষীদের শরণাপন্ন হয়েছে বলে এখনও স্বীকার করেনি। কিন্তু এদিন দিলীপ ঘোষ সাফ জানিয়ে দেন, তাঁরা নেতাজিকে নিয়ে রাজনীতি করবেন। দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য নিয়ে যথেষ্ট জলঘোলা শুরু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here