বিজেপি চাইলে কলকাতাতে লক্ষাধিক লোক নিয়ে এসে লালবাজার কাঁপিয়ে দিত: দিলীপ ঘোষ

0
629

মহানগর ওয়েবডেস্ক: লোকসভা ভোটের পরেও নানা কারণে রাজ্য জুড়ে অশান্তি। কোথাও বিজেপি কর্মীদের হত্যা করে দেওয়া কিংবা তাঁদের বাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া, আবার কোথাও রাজ্যজুড়ে সন্ত্রাস সৃষ্টি। এই বিষয়ে বারবার অভিযোগ করেছে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি। গতবছরের পঞ্চায়েত নির্বাচনে তাঁদের দলের প্রায় ৩০ জন লোক মারা গিয়েছেন বলে বারবার দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতৃত্ব।

গত সপ্তাহে উত্তর ২৪ পরগণার সন্দেশখালিতে দুই বিজেপি কর্মীর মৃত্যুকে ঘিরে রণক্ষেত্রে হয়ে ওঠে ওই এলাকা। মূলত সেই বিষয়কে কেন্দ্র করে ও রাজ্য জুড়ে ভোটপরবর্তী হিংসাকে কেন্দ্র করে এদিন রাজ্য বিজেপি সংকল্প নেয় তাঁরা লালবাজার অভিযান করবে। কিছুদিন আগেই রাজ্য বিজেপির সভাপতি ও সাংসদ দিলীপ ঘোষ সাংবাদিক সম্মেলন করে জানান ‘প্রায় এক লক্ষ এনে আমরা লালবাজার অভিযান করব’। কিন্তু এদিনের মিছিল দেখে রাজনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা লালবাজার অভিযানের নামে বিজেপির এই পদক্ষেপ কার্যত ফ্লপ শোতে পরিণত হয়েছে। যদিও রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব দাবি করেন এই অভিযান তাঁদের সফল।

 

মিছিল শেষে এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে দিলীপ ঘোষ জানান, ”সারা রাজ্য জুড়ে যে হিংসা হচ্ছে তাঁর বিরুদ্ধে আমাদের এই প্রতিবাদ মিছিল ও লালবাজার চলো অভিযান ছিল। প্রায় লাখ খানেক লোকের শান্তিপূর্ণ মিছিল ছিল। কিন্তু আপনারা সবাই দেখেছেন কীভাবে আমাদের মিছিল আটকানোর জন্য বিল্ডিং থেকে ইট মারা হয়েছে, আমাদের কর্মীদের লাঠি চার্জ করা হয়েছে। কিন্তু আমরা পুলিশকে মারতে আসেনি, আমরা বাংলার মানুষের কাছে একটাই বার্তা দিতে চেয়েছিলাম বাংলায় কোনও গণতন্ত্র নেই। এখানকার সরকারকে আমরা সতর্ক করতে এসেছিলাম যে এভাবে চলতে পারে না। কিন্তু শান্তিপূর্ণ মিছিলে লালবাজার তো দূর সেন্ট্রাল অ্যাভেনিউ পার না করতেই পুলিশ ঝাঁপিয়ে পড়ে আমাদের কর্মীদের উপর। জল কামান, কাঁদানে গ্যাস ছুঁড়তে থাকে আমাদের লক্ষ্য করে। এই কারণে আমাদের কিছু কর্মীরা বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বিজেপির নাম শুনে, বিজেপির মিছিল দেখে ভয় পাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস। তাই পুলিশকে আমাদের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হচ্ছে। মমতা বন্দোপাধ্যায় ভাবছেন বিজেপি কর্মীদের মেরে, হত্যা করে আমাদের আটকাবেন কিন্তু সেটা সম্ভব নয়।”

 

দিলীপবাবু আরও জানান, ”আমরা চাইলে কলকাতাতে লক্ষাধিক লোক নিয়ে এসে রাস্তা বন্ধ করে শহর কিংবা লালবাজার কাঁপিয়ে দিতে পারতাম। কিন্তু সেটা আমরা করিনি কারণ আমরা শান্তিপূর্ণ মিছিল করতে চেয়েছিলাম।” পাশাপাশি বিজেপির রাজ্য সভাপতি এও হুঁশিয়ারি দেন, ”যদি এইভাবেই পুলিশের মাধ্যমে কিংবা তৃণমূলের গুন্ডার মাধ্যমে কেউ ভেবে নেয় বিজেপিকে আটকাবে তাহলে সেটা ভুল হবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here