kolkata bengali news

ডেস্ক: জন্মদিনে শুভেচ্ছা বার্তা জানানোর পাশাপাশি, মমতাকে দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চেয়ে একবার বিতর্ক তৈরি করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ইস্যু ভিত্তিক রাজনীতিতে যখন মমতার ভুলত্রুটি বের করে লোকসভার মঞ্চ কাঁপাতে ব্যস্ত কেন্দ্র তথা রাজ্য বিজেপির দাপুটে নেতারা। ঠিক সেই সময়েই বেফাঁস মন্তব্য বেরল দিলীপ ঘোষের মুখ থেকে। দিলীপের দাবি, মমতা জামানায় উন্নয়ন হয়েছে এবং তার সুফল পেয়েছেন তিনি নিজে। দিলীপের এহেন মন্তব্যে ফের চিন্তায় পড়ল রাজ্য বিজেপির নেতারা।

লোকসভা নির্বাচন ও রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলকে তুলোধনা করতে বৃহস্পতিবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিক বৈঠকে বসেন দিলীপ ঘোষ। সেখানে তিনি বলেন, ‘মমতা জামানায় উন্নয়ন হয়েছে, আমার বাড়ির সামনে রাস্তা, জল এসেছে।’ তবে মমতা সরকারের গুণগান গাওয়ার পাশাপাশি তাঁকে তুলোধনাও করতে ছাড়েননি দিলীপ। তিনি বলেন, ‘মমতার জনসভায় লোক হচ্ছে না। যে ১০টি আসনে নির্বাচন হয়েছে তার একটিও পাবে না তৃণমূল পরাজয়ের গন্ধ পেয়ে আবোল তাবোল বকা শুরু করেছে। কমপক্ষে ২৩ টি আসন পাব আমরা।’ পাশাপাশি, রাজ্যে বিজেপির দাপট প্রসঙ্গে তিনি দাবি করেন, ‘রাজ্যে মোদী হাওয়া নেই বলে অনেকেই বলছেন, তার কারণ মোদী ঝড় আসছে।’

পাশাপাশি, ‘দেশকে সম্পূর্ণ ভুল দিশা দেখাচ্ছেন হিন্দুত্ববাদীরা’ শীর্ষক এই নিবন্ধে কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি ও সামাজিক প্রেক্ষাপটে এর প্রভাব নিয়ে সরব হয়েছেন অমর্ত্য। সাম্প্রদায়িকভাবে দেশ ভাঙার পাশাপাশি মুসলিমদের জীবনযাত্রাও এই সরকারে আমলে আরও দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে বলে লিখেছেন তিনি। অমর্ত্য সেনের এই নিবন্ধ নিয়েই এদিন জানতে চাওয়া হলে তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন দিলীপ।

স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদকে খোঁচা মারার সুরে দিলীপ বলেন, ‘উনি সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছেন, এই জন্যই আলটপকা মন্তব্য করছেন।’ তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে দিলীপের মুখে মমতার হাতে রাজ্যের উন্নয়ন প্রসঙ্গ নতুন করে বিতর্কের সৃষ্টি করেছে বিজেপির অন্দরে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিনে তাঁকে মমতাকে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চেয়ে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন দিলীপ ঘোষ। যার জেরে দলীয় কর্মীরাই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন দিলীপের উপর। ঘটনার জেরে দিল্লিতে অমিত শাহের কাছে রীতিমতো বকাও খেতে হয় দিলীপ বাবুকে। যদিও পরে নিজের বক্তব্য থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে যান বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here