kolkata bengali news

Highlights

  • দ্বিতীয়বার বিজেপি রাজ্য সভাপতির পদে ফিরছেন দিলীপ ঘোষ
  • ২০১৪ সালে রাহুল সিনহাকে সরিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি হয়েছিলেন দিলীপ
  • বিধানসভা ভোটের দেড় বছর বাকি থাকতে কোনও ঝুঁকি নিতে চায়নি দল

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কিছুটা হলেও সংশয় ছিল, কিন্তু গতকাল দিলীপ একা মনোনয়ন জমা দেওয়ার ফলে তা কেটে যায়। পরিষ্কার হয়ে যায়, দ্বিতীয়বার বিজেপি রাজ্য সভাপতির পদে ফিরছেন দিলীপ ঘোষ। সেই মতো এদিন দিলীপ ঘোষের নামেই সিলমোহর দেয় বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। ফলে আরও চার বছরের জন্য বঙ্গ বিজেপির সেনাপতি হলেন দিলীপ ঘোষ।

২০১৪ সালে রাহুল সিনহাকে সরিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি হয়েছিলেন দিলীপ। তাঁর কটূ ভাষা অনেক সময়ই সমালোচিত হয়েছে। কিন্তু নিজের আদব-কায়দা কখনও বদল করেননি তিনি। ফল মেলে হাতেনাতে। ২০১৪ সালের লোকসভায় ২টি আসন থেকে ২০১৯ সালে বঙ্গে একলাফে ১৮টি আসন দখল করে বিজেপি। যার কৃতিত্ব সিংহভাগই প্রাপ্য দিলীপের। সামনে আবার একুশের অগ্নিপরীক্ষা। এই মুহূর্তে পশ্চিমবঙ্গকেই পাখির চোখ করে এগোচ্ছে বিজেপি। ফলে বিধানসভা ভোটের দেড় বছর বাকি থাকতে কোনও ঝুঁকি নিতে চায়নি দল। ফের একবার দিলীপ ঘোষের ওপরই ভরসা রেখেছেন নরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহরা। গত বছরই অবশ্য তাঁর মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ভোটের কারণে এক বছরের জন্য সভাপতি নির্বাচন স্থগিত রেখেছিল বিজেপি। এই বছর নির্বাচন হওয়ায় ফের একবার সভাপতির আসনে ফিরেছেন তিনি।

বিজেপির অন্দরে বিতর্ক, কোন্দল থাকলেও দলে দিলীপের প্রতিদ্বন্দ্বী এখন কার্যত নেই। মাঝে মনে করা হচ্ছিল দিলীপকে কেন্দ্রের প্রতিমন্ত্রী করে এখানে সম্ভাব্য কোনও মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী মুখকে সভাপতি করতে পারে বিজেপি। কিন্তু একুশের ভোটের আগে দিলীপকে মুরলীধর ধর সেন লেন থেকে দীন দয়াল উপাধ্যায় মার্গে নিয়ে চলে গেলে একধাক্কায় সংগঠনের রাশ হাত থেকে বেরিয়ে যাবে।

অন্যদিকে আরও একটা তাৎপর্যপূর্ণ বিষয়, দিলীপের বিতর্কিত বয়ানের ফুলঝুরি সত্ত্বেও উনিশের লোকসভায় ১৮টি আসন পেয়েছিল বিজেপি। ফলে দিলীপ গুলি চালানোর কথা বলুন বা বোমা ছোড়ার, যদি ভোট পাওয়া যায় তবে দলের তাতে কোনও সমস্যা নেই। যদিও দলের এই তত্ত্বে বাবুল সুপ্রিয় বা স্বপন দাসগুপ্তদের সায় নেই। তাঁরা প্রকাশ্যেই দিলীপের সমালোচনা করছেন। দিলীপও আবার পাল্টা দিচ্ছেন। ফলে কোন্দল ও মনোমালিন্য সঙ্গে করেই দিলীপ ঘোষকেই পরবর্তী বিজেপি রাজ্য সভাপতি রূপে দেখা যাবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here