ভদ্রলোকের এক কথা, ২৩-এর বেশি আসন পাব: আত্মবিশ্বাসে টগবগে দিলীপ

0
32
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সাত দফার নির্বাচন শেষ হয়েছে, প্রকাশ্যে এসেছে সমস্ত সংবাদ মাধ্যমের এক্সিট পোল। যার সারবত্তা, হাসতে হাসতে ফের দিল্লির মসনদে আসিন হতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদী। তবে রবিবারের বুথ ফেরত সমীক্ষায় সম্ভবত পশ্চিমবঙ্গ সবচেয়ে বড় সারপ্রাইজ দিয়েছে বিজেপি শিবিরকে। বেশিরভাগ সংবাদ মাধ্যমের সমীক্ষায় আভাস মিলছে, এ রাজ্যে ৩৪ থেকে ২৪ এমনকি ২০ হয়ে যেতে পারে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। অন্যদিকে বিজেপি ২ থেকে ১৬ এমনকি ১৮ হতে পারে। ‘টুডেজ চাণক্য’ আবার এই আসন সংখ্যাই ১৮-২৩ হতে পারে বলে জানিয়েছে। ফলে একদিকে যেমন দুশ্চিন্তার চোরা স্রোত বইছে ঘাসফুলের অন্দরে। তেমনই উৎসব পালনের প্রস্তুতি চলছে মুরলীধর সেন স্ট্রিটের অফিসে।

গতকাল এক্সিট পোল প্রকাশ্যে আসার পর এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে বসেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর শরীরী ভাষাই বলে দিচ্ছিল, জয়ের ক্ষেত্রে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী তিনি। তবে সংবাদ মাধ্যমের সমীক্ষায় এ রাজ্যে বিজেপিতে ১৫-১৮টি আসন দেওয়া হলেও দিলীপ বলছেন, ২৩টির বেশি আসনই পাবে বিজেপি। সমীক্ষার প্রসঙ্গ উঠতেই দিলীপ সটান জানিয়ে দেন, ‘আগেও বলেছি, এখনও বলছি। ভদ্রলোকের এক কথা, ২৩-এর বেশি আসন পাব।’ এক্সিট পোল প্রকাশের পরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, ১০০০টি ইভিএম গড়মিল করে ফলাফল প্রভাবিত করার চেষ্টা করা হতে পারে। মুখ্যমন্ত্রীকে পাল্টা দিয়ে দিলীপ বলেন, ১০০০টি ইভিএমে কত ভোট পড়ে? এতে ফলাফল প্রভাবিত হওয়া সম্ভব নয়। আসলে হারের ভয়ে এসব কথা বলছেন উনি (মমতা)।

এদিনও দিলীপবাবু সোজাসুজি জানান, বাংলার প্রচুর বিধায়কের সঙ্গেই যোগাযোগ রয়েছেন তাঁর। দিনকয়েক আগেই একটি জনসভায় এসে মোদী বলে গিয়েছিলেন, বাংলার ৪০ জন বিধায়ক তাঁর সঙ্গে যোগাযোগে রয়েছে। এদিন এককাঠি ওপরে উঠে দিলীপ বলেন, সেই নম্বরটা ১০০-র উপরও যেতে পারে। অনেকেই ফোন করছেন, খোঁজ খবর নিচ্ছেন। সবার সঙ্গেই সৌজন্যের সম্পর্ক রয়েছে। তবে এদিন যতবারই তাঁর কাছে বুথ ফেরত সমীক্ষার বাস্তবতার সম্পর্কে জানতে চাওয়া হয় দিলীপ বলেন, ‘ভদ্রলোকের এক কথা, ২৩-এর বেশি আসন পাব।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here