ডেস্ক: ‘কাঁচা বাঁশের লাঠি কেটে রাখবেন। ভোটের দিন বাইরে থেকে কেউ এলাকায় এলে খাটিয়াতে করে বাড়ি পাঠাবেন।’ নাম না করে ভোটের সময় তৃনমূলী বহিরাগত প্রসঙ্গে মমতা সরকারকে একহাত নিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সম্প্রতি ফেডারেল ফ্রন্ট গঠনের লক্ষ্য নিয়ে মঙ্গলবার দিল্লিতে তিন দিনের সফরে গিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে রাজ্যে তৃতীয় ফ্রন্টের লক্ষ্যে মমতার এই সফরকে কটাক্ষবাণে বিদ্ধ করে চলেছে রাজ্যের বিজেপি সংগঠন। এদিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তোপ দেগে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘দিদিমণি মাত্র ৩৪ টা সিট পেয়ে দিল্লিকে চোখ দেখাচ্ছেন। কিন্তু দিল্লি জিততে লাগে ২৭২ টা। ৩৪ টা দিয়ে হয় না। অনেকে দিদিকে হাওয়া দিচ্ছেন। বলছেন, উনি প্রধানমন্ত্রী হবেন। উনি দিল্লি গিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী হয়ে ফিরবেন।’

শুধু তাই নয়। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষ্যে নদীয়ার কৃষ্ণনগরে এক সভা করেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেখানে মমতার দিল্লি সফর নিয়ে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘দিদি তিন দিনের জন্য দিল্লি গিয়েছেন। উনি প্রধানমন্ত্রী হয়ে ফিরবেন। দিল্লিতো মোদীজি দেখছেন, উনি যদি বেশিদিন দিল্লি থাকেন তবে কলকাতাটা আমরা দখল করে নেব।’ এদিনের সভায় রাজ্যের বিজেপি কর্মীদের একজোত হওয়ার বার্তা দিয়ে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে তৃণমূলের অরাজকতা প্রসঙ্গে কর্মীদের সতর্ক করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘ভোটের সময় কাঁচা বাঁশের লাঠি কেটে রাখবেন। ভোটের দিন বাইরের গ্রামের কেউ ঢুকলে তাকে খাটিয়াতে করে বাড়ি ফিরতে হবে। কাউকে ভোট লুট করতে দেবেন না। ভোট লুঠ করলেই ব্যবস্থা নেবেন। নিজের অধিকার ছাড়বেন না।’

উল্লেখ্য, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃতীয় ফ্রন্টের লক্ষ্যে দিল্লি সফরকে এদিন কটাক্ষ করেছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়ও। এদিন সকালে বিজেপির এক সাংগঠনিক বৈঠকে যোগ দিতে শিলিগুড়ি যান মুকুলবাবু। সেখানেই মুখ্যমন্ত্রীর তৃতীয় ফ্রন্ট প্রসঙ্গে তিনি বলেন ‘তৃতীয় ফ্রন্ট একটি মরীচিকা মাত্র। এর কোনও বাস্তব ভিত্তি নেই। কোনওদিন বিকল্প তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ে তুলতে পারবেন না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বহুবার চেষ্টা হয়েছে, আর মরীচিকার মতোই তা উবে গিয়েছে। এবারও তা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here