‘সত্যি ফাঁসের ভয়ে রাজ্যপালকে খাঁচায় রাখতে চায় সরকার’! তৃণমূলকে তুলোধনা দিলীপের

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাজ্য সরকারের কাছে নিজের সফরের জন্য হেলিকপ্টার চেয়ে পাননি রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। ফের সরকারকে তোপ দিয়ে বলেছিলেন যে, ‘দরকার হলে হেঁটেই যাব।’ পরবর্তী সময় অবশ্য তৃণমূলের তরফে তাঁকেও কটাক্ষ করা হয়। কিন্তু রাজনীতি এখনও থামেনি। সাংবাদিক বৈঠকে এই বিষয় মন্তব্য করে ফের উস্কানি দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বললেন, ‘সরকার রাজ্যপালকে খাঁচায় বন্দি করতে চাইছে’!

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে দিলীপ ঘোষ রাজ্যপাল-সরকার দ্বন্দ্ব নিয়ে মন্তব্য করে বলেন, রাজ্যপালকে নিয়ে বিতর্ক এখনও বহাল। বাংলার রাজনীতিতে এটি নতুনভাবে সংযোজিত হয়েছে। রাজ্যপাল সংবিধান মেনে কাজ করছেন কী করছেন না তা দেখার লোক রয়েছে। তিনি রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় প্রশাসনিক কাজে হোক কী অন্য অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন, তিনি বলছেন যে সংবিধানিক এক্তিয়ার মেনেই কাজ করছেন।

তিনি দুবার হেলিকপ্টার চাওয়ার পরও পাননি, তবে হেলিকপ্টার সরকারি কাজের জন্যই রাখা আছে। রাজ্যপালের এই সফর মনে হয় তৃণমূলের পছন্দ নয়। তাই রাজ্যপালকে তারা খাঁচায় রাখতে চাইছে, কারণ তিনি বের হলে সব অপ্রিয় সত্যি সামনে চলে আসবে।

সেই জন্য তাঁকে আটকে রাখার একটা অপচেষ্টা হচ্ছে বলে দাবি করেন দিলীপ।

রাজ্য সভাপতি বিজেপির বক্তব্য,

মুখ্যমন্ত্রী নিজে ‘হাওয়াই সফর’ করে এসেছেন বুলবুল ঘূর্ণিঝড়ের পর। আকাশ থেকে দেখে এসেছেন কটা বাড়ি ভেঙেছে। তাঁর এটা পুরোনো অভ্যাস, তিনি চোখ দেখলে মাওবাদীও চিনতে পারেন। এবার হেলিকপ্টার থেকে বাড়িও গুনে নিলেন, কখনও বললেন ২ লক্ষ ভেঙেছে, কখনও বললেন ৫ লক্ষ।

তবে হিসেব বলছে, দুই ২৪ পরগণায় ৫ লক্ষ কাঁচা বাড়ি থাকা সম্ভব নয়। দিলীপের কথায়, এইসবের জন্য যদি মুখ্যমন্ত্রী হেলিকপ্টার পেয়ে হাওয়া খেতে পারেন, তবে রাজ্যপালের তা না পাওয়ার কী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here