ডেস্ক: ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে, এনডিএ জোটের বন্ধন যেন আরও ঢিলে হয়ে যাচ্ছে। মহারাষ্ট্রে বড় ধাক্কাটা আগেই দিয়েছিল পুরনো শরিক হিসাবে পরিচিত শিবসেনা। গতকালের বাজেটে সন্তুষ্ট না হয়ে এবার এনডিএ-র সঙ্গে আদৌ জোট রাখবেন সেই নিয়ে পুনর্বিবেচনা করতে চাইছেন তেলেগু দেশম পার্টির সর্বেসর্বা তথা অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। ফলে মহারাষ্ট্রে নিজের শক্তি হারানোর পর এই দক্ষিণি রাজ্যেও সিঁদুরে মেঘ দেখতে শুরু করেছে বিজেপি।

গতকালের সাধারণ বাজেট অন্ধ্রবাসীদের জন্য কিছুই নিয়ে আসেনি, এই অভিযোগ তুলেই শুক্রবার অমরাবতিতে নিজের ক্যাবিনেটের সদস্যদের ডেকে কেন্দ্রীয় সরকারকে তুলোধোনা করেন তিনি। ২০১৪ সাল থেকেই অন্ধ্রপ্রদেশে বিজেপি-টিডিপি জোট সরকার ক্ষমতায় আসীন। কিন্তু সেই জোট আদৌ কতদিন টিকে থাকবে তা নিয়ে ঘোর সংশয় তৈরি হয়েছে। জোটের নির্ভরতা খুঁজে দেখতে চলতি সপ্তাহের শেষেই বৈঠকে বসবেন তিনি। সম্ভবত তখনই ফয়সালা হয়ে যাবে এই জোটের ভবিষ্যতের।

প্রসঙ্গত, গত কয়েকমাস যাবত রাজ্যে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে অভব্য আচরণের অভিযোগ তুলে এসেছিলেন চন্দ্রবাবু। এমন হুমকিও তিনি দিয়েছিলেন যে, ”প্রয়োজনে আমরা নিজের রাস্তা দেখে নেব।” তখন থেকেই সাফ হয়েছিল যে, ভাঙন ধরা শুরু হয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশের জোট সঙ্গিদের মধ্যে। কিন্তু গতকালের বাজেট যেন দুই পক্ষের মধ্যে জ্বলতে থাকা আগুনের মধ্যে আরও ঘৃতাহুতির কাজ করল। যেই জোট ভাঙার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল, সেই জোটের সার্থকতা খুঁজতেই এবার বৈঠকে বসে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চাইছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here