মহানগর ওয়েবডেস্ক: দলিত বিচারককে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় ডিএমকে রাজ্যসভার সাংসদ ও দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আরএস ভারতীকে গ্রেফতার করল চেন্নাই পুলিশ। গত ফেব্রুয়ারি মাসে এক দলিত বিচারককে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছিলেন তিনি। শনিবার সকালে আলানদুরে নিজের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় তাঁকে।

যদিও গ্রেফতারির পর ওই ডিএমকে সাংসদের অভিযোগ, রাজ্যের এআইএডিএমকে সরকারের দুর্নীতি নিয়ে সরব হওয়ায় ইচ্ছে করে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ‘একটি সভায় আমার বক্তব্যের একটি নির্দিষ্ট অংশ সোশ্যাল মিডিয়ায় ইচ্ছাকৃতভাবে ছড়ানো হচ্ছে। ওই ঘটনার পরের দিনই আমি সেই নিয়ে আমার মতামত সকলকে জানিয়েছিলাম। আজ ১০০ দিন পর আমার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এটার কারণ হল, আমি গতকাল সন্ধ্যায় উপমুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করেছিলাম।’

‘এছাড়া করোনা ভাইরাস নিয়ে স্যানিটাইজিংয়ের জন্য ব্লিচিং পাউডার নিয়ে উনি ২০০ কোটির দুর্নীতি করেছেন। সেই অভিযোগও আমি করতে চলেছিলাম
উনি কোনও ভাবে খবর পেয়ে আমার মুখ বন্ধ করার জন্য আমায় গ্রেফতার করিয়েছেন। তবে আমার অভিযোগ আটকানো যাবে না’, বলেন তিনি।

ডিএমকে সাংসদ আরও জানান, ‘আমার বয়সের কথা আমি পুলিশকে জানিয়েছি। এছাড়া আমি সেলফ কোয়ারেন্টিনে আছি। তবে পুলিশদের আমি দোষ দেব না। কারও ব্যক্তিগত ইচ্ছা পূরণের জন্য তাদের এসব করতে হচ্ছে। কয়েক মাস পরেই ওই পুলিশ কর্মীরাই আমায় স্যালুট করবেন।’

প্রসঙ্গত, ফেব্রুয়ারি মাসে এক সভায় আরএস ভারতী বলেন, ‘দ্রাবিড় আন্দোলনের কারণেই তামিলনাড়ু অন্যতম সেরা রাজ্য। মধ্যপ্রদেশে কোনও হরিজন কিন্তু হাইকোর্টের বিচারপতি হননি। কিন্তু করুণানিধির আমলে একজন “দলিত” মাদ্রাস হাইকোর্টে বিচারক হয়েছিলেন প্রথমবারের জন্য। এরপর আরও আদি দ্রাবিড় গোষ্ঠীর মানুষ বিচারক হয়েছেন।’

তাঁর এই বক্তব্য সামনে আসতেই সেই সময় নানা ক্ষেত্রে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। যদিও তারপরের দিনই সেই মন্তব্যের জন্য ক্ষমাপ্রার্থনা করেছিলেন ডিএমকে সাংসদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here