news bengali international

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আমেরিকা-চিন সংঘাত ক্রমশই উত্তপ্ত হচ্ছে। শুক্রবার (মার্কিন সময়) এক শ্রেণীর চিনা ছাত্রদের আমেরিকায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এক নির্দেশিকা জারি করে তিনি জানিয়েছেন, যেসব চিনা ছাত্র ও গবেষকের চিনের সেনার সঙ্গে যোগসূত্র আছে, তারা আমেরিকার ভিসা পাবে না। চিনা সেনা যাতে আমেরিকার শিক্ষা ও প্রযুক্তি ব্যবহার না করতে পারে, তাই এই সিদ্ধান্ত।

ট্রাম্পের দাবি, মার্কিন টেকনোলজি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে। তারা মার্কিন শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে সেই জ্ঞান নিজেদের সেনাকে উন্নত করার অভিসন্ধি নিয়েছে। চিনের এই পদক্ষেপ আমেরিকা ও আমেরিকার বাসিন্দাদের সুরক্ষার জন্য সঠিক নয়।

তিনি আরও বলেন, মার্কিন টেকনোলজি হাতানোর জন্য ছাত্র ও গবেষকদের ব্যবহার করছে চিন। তারা বেছে বেছে আমেরিকায় ছাত্র ও গবেষকদের উচ্চশিক্ষা লাভের জন্য পাঠাচ্ছে। কয়েক বছর আমেরিকায় থেকে শিক্ষিত হওয়ার পর ওই ছাত্র ও গবেষকরা চিনের সেনায় যোগ দিয়ে মার্কিন শিক্ষা সেদেশের সেনার উন্নয়নে কাজে লাগাচ্ছেন।

যদিও স্বাভাবিকভাবেই ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছে চিন। তারা এটাকে বৈষম্যমূলক আচরণ বলে দাবি করেছে। আমেরিকা এসকে ঠান্ডা যুদ্ধের প্রস্তুতি করছে বলে অভিযোগ চিনের। সেই সঙ্গে সঙ্গে আমেরিকায় বসবাসকারী চিনাদের যাতে মৌলিক অধিকার খর্ব না করা হয়, তাও সুনিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে চিন।

অন্যদিকে, করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রথম থেকেই চিনকে আক্রমণ করে এসেছে আমেরিকা। সেই সঙ্গে হুকেও চিনের পুতুল বলে অভিযোগ তোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। করোনা রোধে হু নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করছে না, চিনের ‘তাঁবেদারী’ করছে বলে অভিযোগ ছিল তাঁর। আগেই জানিয়েছিলেন হু যদি চিনের ছত্রছায়া থেকে বেরিয়ে না আসে, তাহলে ফল ভালো হবে না। সেই হুমকি মতোই শুক্রবার হুয়ের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয় আমেরিকা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here