kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা প্রবেশ করেছে কলকাতায়। এই অবস্থায় শহরবাসীর অযথা আতঙ্ক কাটাতে, প্রচারে নামল সিপিআই(এম)। বুধবার রাস্তায় নামেন ৯৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মৃত্যুঞ্জয় চক্রবর্তী। সঙ্গে ছিলেন বিশিষ্ট চিকিৎসক তথা ওয়ার্ডর মেডিকেল অফিসার অরিজিৎ সেন। হাতে পোস্টার নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে করোনা সচেতনতা মূলক প্রচার।

এদিন সকাল থেকেই ৯৮ নম্বর ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে চলে এই প্রচার। চিকিৎসক অরিজিৎ সেনের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ওই ওয়ার্ডের স্বাস্থ্য কর্মীরাও। হাতে করোনা সতর্কতা মুলুক পোস্টার নিয়ে পুরো এলাকা ঘরেন তাঁরা। তবে শুধুমাত্র পোস্টারের। মাধ্যমেই নয়, করোনা আক্রমণ রুখতে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা উচিত, এদিন সেই সম্পকেই এলাকাবাসীর বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝান তাঁরা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গে প্রথম এক ব্যক্তির করোনা ধরা পড়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তি স্বরাষ্ট্র দফতরে এক উচ্চপদস্থ আমলার ছেলে। জানা গিয়েছে, গত ১৫ মার্চ ওই যুবক ইংল্যান্ড থেকে ফিরেছিলেন। ভারতে ফেরার পর অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই ব্যক্তি। সোমবার বাড়িতেই কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছিল তাঁকে। সেখান থেকে তাঁর নমুনা সংগ্রহ করেই পাঠানো হয়েছিল বেলেঘাটা আইডিতে। সেই রিপোর্টে যুবকের শরীরে করোনাভাইরাস পজিটিভ পাওয়া যায়। এরপরই ইংল্যান্ড থেকে আসার পর ওই যুবক যাঁদের সংস্পর্শে গিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে বিশেষত তাঁর মা-বাবা ও গাড়ির ড্রাইভারকে তড়িঘড়ি আনা হয় বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে।

এদিকে কলকাতায় করোনা প্রবেশ করেছে শুনেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। এই অবস্থায় রুখতে গুজব ছড়ালে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয় লালবাজার থেকেও। একইভাবে সমস্ত রকম গুজব এড়াতে শহরবাসীর কাছে অনুরোধ করেন কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। এদিকে মেয়র যেখানে অনুরোধ করেই খান্ত, সেখানে সিপিএমের রাস্তায় নেমে চিকিৎসকদের দিয়ে করোনা সচেতনতা মুলক প্রচারকে সাধুবাদ জানায় এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here