ছবি- প্রতিকী

ডেস্ক: শত্রুপক্ষকে নাস্তানাবুদ করতে এবার আরও অত্যাধুনিক মিসাইল বানাতে চলেছে DRDO। এই মিসাইলের মাধ্যমে প্রতিপক্ষ দেশের বোমারু বিমান, ড্রোন এবং হেলিকপ্টারকে নিমেশে ধ্বংস করে দেওয়া যাবে। মিসাইলটি তৈরি করার বরাত দেওয়া হয়েছে ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন পর্ষদ DRDO-কে। ডিআরডিও এই বরাত সানন্দে গ্রহণ করে জানিয়ে দিয়েছে, আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই স্বদেশে তৈরি হয়ে যাবে এই মিসাইল।

ভূমি থেকে আকাশে শত্রুপক্ষের অস্ত্রে হামলা চালানোর ক্ষেত্রে মিসাইলের আটটি রেজিমেন্ট হাসিল করাই আপাতত ভারতীয় প্রতিরক্ষার লক্ষ্য। জানা গিয়েছে, এই অত্যাধুনিক মিসাইল আকাশে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত সীমার মধ্যে যে কোনও লক্ষ্যবস্তুকে ধ্বংস করে ফেলতে সক্ষম হবে। এতদিন পর্যন্ত সোভিয়েত রাশিয়ার OSA-AK-র স্থান দখল করবে। সরকারের তরফে সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হয়েছে, নতুন এই মিসাইলটি QR-SAM শ্রেণির হবে। এই মিসাইলটিতে যে ধরণের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে তা বিদেশে তৈরি প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম থেকেও কয়েক যোজন এগিয়ে থাকবে।

এই QR-SAM শ্রেণির মিসাইলটিকে অনেকে আবার মজা করে তৎকাল মিসাইলও নাম দিয়েছেন। কারণ মিসাইলটি তার চরম গতিবেগের জন্য খ্যাত এবং উল্টোদিক থেকে আসা হেলিকপ্টার, ড্রোন অথবা বিমানকে যে কোনও মুহূর্তে ধ্বংস করে পারে। অতিরিক্ত প্রস্তুতিও নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে না। লঞ্চপ্যাডে ইনস্টল করলেই তা নিক্ষেপের জন্য তৈরি হয়ে যায়। তাই এর নাম তৎকাল বলে ইতিমধ্যেই ডাকা শুরু করেছেন অনেকে। জানা গিয়েছে এর গতিবেগ প্রতি সেকেন্ডে কমপক্ষে ৭০০-৮০০ মিটার পর্যন্ত হবে। আগামী ৪৮ মাসের মধ্যে মিসাইলটি ভারতীয় সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়ার ক্ষেত্রে আশাবাদী DRDO।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here