মহানগর ওয়েবডেস্ক: সর্ষের মধ্যেই যে ভূত রয়েছে সে খবর পাওয়া গিয়েছিল আগেই। তবে ভূতটিকে খুঁজে পেতে খানিক বেগ পেতে হয়েছিল গোয়েন্দাদের। অবশেষে খোঁজ মিলল সেই বিশ্বাসঘাতকের। বিকাশ দুবের গ্রেপ্তারি অভিযানের গোপন খবর থানা থেকে ফাঁস করার অভিযোগে বুধবার গ্রেপ্তার করা হল বিনয় তিওয়ারি নামে এক পুলিশ কর্মীকে। এই বিশ্বাসঘাতকের কারণেই গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের পোষা গুন্ডাদের গুলিতে মৃত্যু হয় উত্তরপ্রদেশের ৮ পুলিশকর্মীর।

সূত্রের খবর অভিযুক্ত বিনয় তিওয়ারি বিকাশ দুবের গ্রামের পুলিশ থানার ইনচার্জ। এর আগেও গ্যাংস্টার এর বিরুদ্ধে চলা একাধিক মামলা প্রভাবিত হয়েছে এই পুলিশকর্মীর জেরে। পুলিশের তরফ থেকে দুবের বিরুদ্ধে নেওয়া যেকোনও রকম পদক্ষেপ আগাম ফাঁস করে দিত এই তিওয়ারি। একইভাবে বিকাশকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের তরফ থেকে যে অভিযান চালানো হয়েছিল থানা থেকে ফোনে তা দুবেকে জানানো হয়। যার জেরে আগাম সতর্ক হয়ে যায় বিকাশের গ্যাং এবং রীতিমত ফাঁদে আটকা পড়ে শহিদ হন ৮ জন পুলিশ কর্মী। ঘটনার শুরু থেকেই সন্দেহের তীর ছিল বিনয় তিওয়ারির দিকে। সাসপেন্ডও করা হয়েছিল তাকে। এরপর তদন্তে একাধিক প্রমাণ জোগাড় করার পর বুধবার গ্রেপ্তার করা হয় তাকে। একই অভিযোগে থানার আরো এক সাব-ইন্সপেক্টর কেকে শর্মাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এদিকে এই গ্রেপ্তারের ঘটনা ঘটল তখন যখন বিকাশ থেকে পাকড়াও করতে অনেক দূর এগিয়ে গিয়েছে উত্তর প্রদেশ পুলিশ বাহিনী। সম্প্রতি দিল্লির কাছে এক হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে বিকাশ দুবেকে। এনকাউন্টারে খতম হয়েছে দুবের ঘনিষ্ঠ সহযোগী অমন দুবে। উল্লেখ্য, খুন অপহরণ তোলাবাজির মত সাতটি মামলায় অভিযুক্ত বিকাশ দুবের খোঁজে গত শুক্রবার তার গ্রামের বাড়িতে হানা দেয় ৫০ জন পুলিশের একটি দল। প্রথমে জেসিবি দিয়ে পুলিশের পদ আটকানোর চেষ্টা করা হয়। তাতে কাজ না হওয়ায় পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় ৮ জন পুলিশ কর্মীর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here