kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, দুর্গাপুর: রাজ্যের ইস্পাতনগরী দুর্গাপুরের একটি কলোনিতে তৃণমূলের দেওয়াল লিখন মুছে দেওয়াকে ঘিরে জোর চাঞ্চল্য ছড়ালো বুধবারে। পাশাপাশি একই দিনে শাসকের বিরুদ্ধে একই ধরনের অভিযোগ তুলে সরব হল বামেরাও। দুটি ঘটনাকে ঘিরেই উত্তেজনার পারদ চড়লো শিল্পাঞ্চলে। জানা গিয়েছে, বুধবার দুপুরে দুর্গাপুরের ২৪ নং ওয়ার্ডের গনতন্ত্র কলোনীতে নির্বাচন কমিশনের একটি গাড়ী পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে এলাকায় যায়। সেখানে বেশ কয়েকটি বাড়ীর দেওয়ালে তৃণমূল প্রার্থী মমতাজ সংঘমিতার সমর্থনে দেওয়াল লিখন ছিল। কমিশনের আধিকারিকগন বাড়ীর মালিকদের কাছ থেকে অনুমতি পত্র দেখতে চান। কিন্তু তারা জানায় যে অনুমতি পত্র তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে রয়েছে। তা নিয়ে আসার জন্য আধ ঘন্টা সময় চান তারা।

কিন্তু স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, কমিশন সেই সময় না দিয়ে ওই এলাকার প্রায় ১০টি দেওয়াল মুছে দেয়। এই নিয়ে স্থানীয়দের সঙ্গে বচসাও বেধে যায় কমিশনের আধিকারিকদের। স্থানীয়রা কমিশনের দেওয়াল মোছার অনুমতিপত্র দেখানোর দাবি জানাতে থাকে। বাড়ির মালিক নবি হোসেন কিংবা শোভা শীল জানান যে তাদের অনুমতি নিয়েই তৃণমূল দেওয়াল লিখেছে। পরবর্তীকালে অবশ্য বাকি দেওয়াল না মুছেই গাড়িটি চলে যায়। এই বিষয়ে তৃণমূলের জেলা কার্যকরী সভাপতি উত্তম মুখার্জী জানান যে কমিশনে গোটা ব্যাপারটি নিয়ে অভিযোগ জানাবেন তিনি।

 

অন্যদিকে দুর্গাপুর থেকে ঢিল ছোঁড়া দূরত্বে কাঁকসার গোপালপুরে সিপিএমের দেওয়া লেখন মুছে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলেরই বিরুদ্ধে। বুধবার সকালে সিপিএমের দলীয় কর্মীরা দেখতে পায় কাঁকসার গোপালপুর কয়েকটা দেয়াল লিখন মুছে দেওয়া হয়েছে। এরপরই সিপিএম এর পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে তৃণমূল। বামেদের আরও অভিযোগ, শুধু দেওয়াল লিখনই মুছে দেওয়া হয়নি মঙ্গলবার রাতেও সিপিএম কর্মিদের মারধরও করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here