Parul

মহানগর ডেস্ক: কসবার ভুয়ো ভ্যাকসিন কান্ডের এবার তদন্ত শুরু করছে ইডি। একাধিক মামলা রয়েছে এই ভুয়ো ভ্যাকসিন কান্ডের পান্ডা দেবাঞ্জন দেবের বিরুদ্ধে। এবার তাই খতিয়ে দেখবে ডিরেক্টরেট অব এনফোর্সমেন্ট। তদন্তের খুঁটি-নাটি জানতেই কলকাতা পুলিশের কাছে রিপোর্ট পাঠানো হয়েছে। 

ads

গত সপ্তাহে দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেছে ইডি। ভুয়ো আইএএস অফিসার দেবাঞ্জনের বিরূদ্ধে এবার তদন্ত করবে কেন্দ্রীয় সংস্থা। তাই প্রথম থেকেই তাঁর বিষয়ে কী কী অভিযোগ করা হয়েছে, মামলার সূত্রে কোথায় কোথায় তল্লাশি করা হয়েছে সেসব জানতে চেয়ে কলকাতায পুলিশকে চিঠি পাঠানো হয় সংস্থার তরফে। ভুয়ো ভ্যাকসিন কান্ডের কান্ডারির সম্পর্কে হোম‌ওয়ার্কের জন্য‌ই প্রধানত এইসব জিজ্ঞাসা।

ভুয়ো ভ্যাকসিন ছাড়াও আরও কী কী অভিযোগ রয়েছে দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে, কোথা থেকে তাঁর কাছে এত টাকা আসত সেসব জানতে চেয়েই চিঠি পাঠানো হয় কলকাতা পুলিশকে। তদন্ত সূত্রের খবর, বিশাল অঙ্কের টাকা আসত দেবাঞ্জনের বাড়িতে। সেই প্রসঙ্গে কোথায় কোথায় তল্লাশি চালানো হয়, তথ্য স্বরূপ কী পাওয়া যায়, কী কী বাজেয়াপ্ত করা হয়, প্রায় সব‌ই জানতে চেয়েছে ইডি। দিল্লিতে কমিটি গঠন করা হয়েছে এই তদন্তের জন্য। 

 কলকাতা পুলিশের কাছে জেলার সময়, তাঁকে প্রশ্ন করা হয় পুরসভার সূত্রে তিনি কোনও পরিচয়পত্র পেয়েছিলেন কি না এছাড়াও যুগ্ম কমিশনার হিসেবে কোনো নথি ইস্যু করা হয়েছিল কি না।

কসবায় এক বেআইনি ভ্যাকসিনেশন কেন্দ্রর গঠন করে 

আইএএস পরিচয় দেওয়া দেবাঞ্জন দেব। সেই ক্যাম্পের ফিতে কাটার অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন সাংসদ মিমি চক্রবর্তী। তিনিও ভ্যাকসিন নেন সেই কেন্দ্রর থেকে। পরে তিনি অসুস্থ হলে, দেবাঞ্জনের কীর্তি ধরা পড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here