মহানগর ওয়েবডেস্ক: ২০২০ – বর্তমান সময়ের সবচেয়ে খারাপ বছর নিঃসন্দেহে। প্রায় অর্ধেক বছর ধরে গোটা বিশ্বে করোনার দাপট। প্রাণ হারিয়েছেন লক্ষাধিক। এছাড়া আর্থিক মন্দা, কোথাও সাইক্লোন, কোথাও প্রবল দাবদাহ, বন্যা, পঙ্গপালের আক্রমণ, হানাহানি ঘটেই চলেছে। অসহনীয় পরিস্থিতিকে আরও অসহনীয় করে তুলতে এবার হাজির ইবোলা। সম্প্রতি আফ্রিকান দেশ কঙ্গোয় ফের একবার এই মারণ ভাইরাসের প্রকোপ দেখা দিয়েছে।

ইউনিসেফের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই সেখানে এক বালিকা সহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত মোট নয়জন। মৃত পাঁচজন সহ মোট নয় আক্রান্তের চিকিৎসাই করা হচ্ছিল এমবান্দাকায় ওয়াঙ্গাটা হাসপাতালে। পাঁচজনেরই মৃত্যু ১৮ থেকে ৩০ মের মধ্যে হয়। কিন্তু তারা যে ইবোলায় আক্রান্ত তা গতকালই জানা গিয়েছে।

২০১৮ সালে কঙ্গোর পূর্বাংশে প্রথম ইবোলা দেখা দিয়েছিল। তাতে মোট ৩,৪০৬ জন মানুষ আক্রান্ত হন, মারা যান ২২৪৩ জন। সেইখানে এই মারণ ভাইরাসের জের এখনও রয়েছে। যদিও শেষ ২১ দিনে কঙ্গোর পূর্বাংশে কেউ নতুন করে আক্রান্ত হননি। তবে শুধু ইবোলা নয়, কঙ্গোয় মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। সেখানে এখনও পর্যন্ত তিন হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত, মারা গিয়েছেন ৭২ জন। তবে ২০১৯ থেকে কঙ্গোয় হামে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লাখ ৭০ হাজার মানুষ। এতে প্রাণ হারিয়েছেন ৬৭৭৯ জন।

উল্লেখ্য, বাদুড় থেকে ছড়ায় এই ইবোলা ভাইরাস। ২০১৪-১৬ সালের মধ্যে এই ভাইরাসের প্রকোপ সবচেয়ে বেশি দেখা গিয়েছিল লিবিয়া, সিয়েরা লিওন, গিনিতে। সেখানে প্রায় ২৮,০০০ মানুষ আক্রান্ত হয়েছিলেন, মারা যান ১১,০০০। নোভেল করোনার থেকেও এই ভাইরাস বেশি মারাত্মক, কারণ এতে মৃত্যুর হার ২৫%-৯০% হতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here