pic-kolkata bengali news

ডেস্ক: দিনদুয়েক আগে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ফল প্রকাশের পর দেখতে পাওয়া যায় ফেল করার নিরিখে নতুন রেকর্ড গড়েছে ঐতিহ্যবাহী এই প্রতিষ্ঠান। বিশ্ববিদ্যালয়ের এই বেনজির ফলে মারাত্মক চটেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কারণ জানতে উপাচার্য, সহ-উপাচার্যকে তলব করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। এই ফলের জন্য কাঠগড়ায় উঠেছে মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার নতুন পদ্ধতি। সূত্রের খবর, সেই পদ্ধতিতে কোনও ত্রুটি রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখতে চান শিক্ষামন্ত্রী।

অন্যদিকে প্রথম বর্ষে ফেল করার কারণে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতি হয়েছে নিউ আলিপুর কলেজের ছাত্রী পর্ণা দত্ত। পর্ণার পরিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া নিয়মকেই এই জন্য দুষছেন। এই আত্মহত্যার ঘটনা নিয়েও যথেষ্ট উদ্বেগে রয়েছেন পার্থবাবু। এই প্রসঙ্গে এদিন শিক্ষামন্ত্রী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো প্রতিষ্ঠানে কেন খারাপ ফল? কেন অনার্সে ভাল ফল, পাসে খারাপ ৷ সেটা খতিয়ে দেখতে হবে ৷’

কিন্তু এই ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি করে অভিযোগ উঠে এসেছে ছাত্রছাত্রীদের উপর ক্লাসে অনিয়মিত উপস্থিতিকে কেন্দ্র করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া মূল্যায়ন পদ্ধতির ফলে নিয়মিত ক্লাস না করলে ছাত্রছাত্রীরা বিপাকে পড়বেন তা অবধারিত। উল্লেখ্য, বিএ পার্ট ওয়ান পরীক্ষার ফলাফল বেরনোর পর দেখা যায়, অকৃতকার্য হয়েছে ৫০ শতাংশেরও বেশি পড়ুয়া। যার ফলে রীতিমতো গম্ভীর প্রশ্ন উঠে যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে৷ বিশ্ববিদ্যালয়ের নয়া নিয়মে অনার্সে কোয়ালিফাই করতে না পারলেও পাসের একটি বিষয় যোগ্য নম্বর তুলতেই হবে। আর এই নিয়মের ফলেই ফেল করেছে বেশিরভাগ পড়ুয়া।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here