ডেস্ক: কলেজ ভর্তিতে দুর্নীতি রুখতে নয়া পদক্ষেপ গ্রহণ করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এবার কোনওরকম ভেরিফিকেশন ছাড়াই আপাতত অনলাইনে ভর্তি হতে পারবেন ছাত্রছাত্রীরা। মঙ্গলবার সাংবাদিক বৈঠক করে সে কথাই স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন যে, ‘আপাতত ভেরিফিকেশন ছাড়াই অনলাইনে ভর্তি হওয়া যাবে। হবে না কোনও কাউন্সেলিংও।’ তিনি আরও বলেন, ছাত্র সংসদের কলেজে ভর্তির ব্যাপারে আর কোনও ভূমিকাই থাকবে না। শহর এবং শহরতলির কলেজগুলিতে ভর্তির ক্ষেত্রে তোলাবাজির যে অভিযোগ উঠছে তার জন্য বহিরাগতদেরই দায়ী করেছেন তিনি। তবে এখন প্রশ্ন উঠছে যে, নতুন ছাত্রছাত্রীদের ভেরিফিকেশন কীভাবে হবে? এর উত্তরে শিক্ষামন্ত্রী স্পষ্ট করেছেন, কলেজের প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু হয়ে যাওয়ার পরেই ছাত্রছাত্রীদের ভেরিফিকেশন করা হবে। অন্যদিকে, কলেজে ভর্তি করিয়ে দেওয়ার নামে টাকা তোলার অভিযোগে ইতিমধ্যেই কলকাতার ৪টি কলেজ গুরুদাস, বিদ্যাসাগর, নর্থ সিটি এবং আনন্দমোহন কলেজের তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ইউনিটগুলি ভেঙে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, কলেজে ভর্তির নাম করে ছাত্রছাত্রীদের থেকে টাকা তোলার অভিযোগে কলকাতার একের পর এক কলেজের নাম জরানোয় যথেষ্ট উদবিগ্ন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীও। এবিষয়ে পুলিশকে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে সোমবার হঠাৎই মুখ্যমন্ত্রী আশুতোষ কলেজ পরিদর্শনে যান। শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ও সোমবার দুপুরে জয়পুরিয়া কলেজ এবং মণীন্দ্রচন্দ্র কলেজে যান। এর পাশাপাশি সোমবার কলকাতার জয়পুরিয়া কলেজের প্রাক্তন জিএস তিতান সাহা গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here