Parul

মহানগর ডেস্ক: আজ যেমন একদিকে রাজনীতিতে ২১ জুলাই, ঠিক সেরকমই আজ খুশির ইদ। আজ গোটা দেশজুড়ে পালন করা হচ্ছে মুসলমান সম্প্রদায়ের খুশির উৎসব। বিধি নিষেধের কথা মাথায় রেখেই এই উৎসব পালন করা হচ্ছে। মূলত ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই উৎসব পালন করছেন মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষেরা।

ads

ইসলাম ধর্মের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ একটি উৎসব হল ইদ-উল-আহাদ। এই উৎসবকে কুরবানীর উৎসব বা ইদ কুরবানির নামেও বলা যেতে পারে। ইসলামিক ক্যালেন্ডার অনুযায়ী তা দ্বাদশ মাসের দশম দিনে ইদ পালন করা হয়। সকাল থেকেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় মুসলমান সম্প্রদায়ের মানুষেরা মেতে উঠেছেন এই অনুষ্ঠানে। ইদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

তিনি টুইট করে লিখেছেন, ইদ মোবারক। ইদ-উল-আদাহতে অনেক অনেক শুভেচ্ছা রইল। এই দিনটা বৃহত্তর স্বার্থে সম্মিলিত ঐক্য ও সহানুভূতির আবহ তৈরি করুক, এই কামনা করি। এমনকি বকরি ইদের শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট করেছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। গতবছরও করোনা আবহের মধ্যে কেটেছিল বকরি ইদ। এবছরের ছবিও বিশেষ কিছু বদলায়নি।

কলকাতা শহরের নানা প্রান্তে পালন করা হচ্ছে এই বিশেষ দিনটি। নির্দিষ্ট সামাজিক দূরত্ব বিধি মেনেই ইদের নামাজ পড়ছেন সাধারণ মানুষ। ইদের শুভেচ্ছাও বেশিরভাগ ডিজিটাল হয়ে গিয়েছে। এবার দিল্লির আকাশ মেঘলা থাকায় জামা মসজিদ থেকে চাঁদ দেখা যায়নি তবে। লখনৌ এর মরকাজি চাঁদ কমিটি ফরঙ্গি মহলির মৌলানা খালিদ রশিদ জানান, সেখান থেকে জুল হিজ্জা চাঁদ দেখা গিয়েছে। চাঁদ দেখার দশ দিন পর বকরি ইদ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here