anurag thakur news

Highlights

  • কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নির্বাচনী প্রচার থেকে ব্যান করল নির্বাচন কমিশন
  • বিজেপিকে কমিশনের নির্দেশ, অনুরাগকে নির্বাচনী প্রচার থেকে বাদ দিতে হবে
  • অনুরাগ স্লোগান তোলেন, ‘দেশকে গদ্দারো কো…’, জনতাকে বলতে শোনা যায়, ‘গোলি মারো সালো কো’

মহানগর ওয়েবডেস্ক: দিল্লি বিধানসভার নির্বাচনী সভায় খানিকটা গর্বের সঙ্গেই উস্কানিমূলক স্লোগান দিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। যা নিয়ে মারাত্মক জলঘোলা শুরু হয়। আদর্শ আচরণবিধির পরোয়া না করেই প্রতিবাদীদের গুলি মারার স্লোগান দিয়েছিলেন তিনি। সেই কারণে এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে নির্বাচনী প্রচার থেকে ব্যান করল নির্বাচন কমিশন। বুধবারই বিজেপিকে কমিশন নির্দেশ দিয়ে জানিয়েছে, অনুরাগকে নির্বাচনী প্রচার থেকে বাদ দিতে হবে তাদের।

দেশের সকল মুখ্যমন্ত্রীদের মধ্যে অন্যতম সেরা মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বিবেচিত আম আদমি পার্টির প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়াল। পাঁচ বছরে দিল্লিতে তাঁর কাজ সব মহলে প্রশংসিত হয়েছে। প্রাক নির্বাচনী সমীক্ষাতেও দেখা গিয়েছে, ৭০টি বিধানসভা আসনের মধ্যে বিজেপি ৮-১০টির বেশি আসন পাওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই। এমতবস্থায় একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা-মন্ত্রী সহ ৪০ জন তারকা প্রচারক নিয়ে ময়দানে নামে বিজেপি। সেই তালিকায় অনুরাগ ঠাকুরের নামও ছিল। কিন্তু একটি সভায় বিতর্কিত স্লোগান দিয়ে বসেন তিনি। সিএএ বিরোধী আন্দোলনকারীদের ‘দেশদ্রোহী’ আখ্যা দিয়ে স্লোগান তোলেন, ‘দেশকে গদ্দারো কো…’। জনতাকে বলতে শোনা যায়, ‘গোলি মারো সালো কো।’ পরে অবশ্য সাফাই দিয়ে তিনি বলেছিলেন, মানুষের মুড বুঝে সেই স্লোগান তুলেছিলেন তিনি। তবে তা ধোপে টিকল না।

মূলত বিরোধী মত পোষণকারীদের কটাক্ষ করতেই এই নতুন স্লোগান আমদানি করেছে বিজেপি। তবে অনুরাগ ঠাকুরের এই সভার ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায় চটজলদি। নিন্দার ঝড় বইতে শুরু করে সব মহলে। এরপরই কমিশন নোটিশ পাঠায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে। এহেন মন্তব্যের জন্য জবাবদিহি চাওয়া হয়। কিন্তু সূত্রের খবর, ২৪ ঘণ্টা কেটে গেলেও যুতসই জবাব দিতে পারেননি অনুরাগ। ফলে শেষ পর্যন্ত তাঁকে ব্যান করা ছাড়া আর কোনও উপায়ও ছিল না নির্বাচন কমিশনের।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here