FotoJet1309

ডেস্ক: ট্রেলার মুক্তির পরেই বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির রোষের মুখে পড়ে ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’। নির্বাচনের সময় কীভাবে এই সিনেমা মুক্তি দেওয়া হচ্ছে সেই বিষয়ে নির্বাচন কমিশন ও সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় বিরোধী দলগুলি। যদিও সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি স্পষ্ট জানিয়ে দেন কমিশনের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত হিসাবে মেনে নেওয়া হবে। সেইমতো গত ১০ এপ্রিল সিনেমা মুক্তির একদিন আগেই ভোট চলাকালীন এই সিনেমার মুক্তি স্থগিতের নির্দেশ দেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার। যার জন্য হতাশ হয়ে পড়েন ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’র প্রযোজক ও কলাকুশলিরা। যার জন্য তাঁরা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়ে জানান বিরোধীদের কথা শুনেই এই কাজ করেছেন নির্বাচন কমিশনার।

তাঁদের অভিযোগের ভিত্তিতে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেন কমিশনের একবার উচিত সিনেমাটি দেখে সিদ্ধান্ত নেওয়া। এই ক্ষেত্রে কমিশন সিদ্ধান্ত নেবে তাঁরা কবে দেখতে চাই আর কেনই বা ব্যান করেছে তাঁরা। সিনেমার বিশেষ প্রদর্শনের জন্য প্রযোজকেরা ব্যবস্থা করবন বলেও জানান সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ। সেইমতো তাঁরা জানিয়ে দেন আগামী ২২ এপ্রিল এই মামলার চূড়ান্ত রায় দেবেন তাঁরা। তবে পুরোটাই কমিশনের সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করেই এই রায় হবে সেটাও জানিয়েছেন বিচারপতিরা। সূত্রের খবর, সুপ্রিম রায়ের পরে নড়েচড়ে বসেছে কমিশন, এই সিনেমার প্রযোজকদের আয়োজন করা প্রদর্শনীতে আগামীকাল সিনেমাটি প্রধান বিচারপতির কাছে রিপোর্ট দেবেন বলে জানা গিয়েছে।

 

কমিশনের এই সিনেমা ব্যানের পিছনে যুক্তি ছিল ভোটের সময় নির্বাচনী বিধিভঙ্গের জন্য নির্বাচন চলাকালীন মুক্তি স্থগিত রাখা হয়েছে। ‘পি এম নরেন্দ্র মোদী’র বায়োপিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যাবে বিবেক ওবেরয়কে। সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন উমাঙ্গ কুমার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here