ডেস্ক: ফের পিছিয়ে গেল ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশের দিন৷ ঠিক ছিল সোমবার সন্ধ্যার মধ্যে নতুন করে ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশ করবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন৷ সেইমতো প্রস্তুতিও সাড়া ছিল৷ মনোনয়ন শেষ হওয়ার পর বিকেলেই প্রতিটি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে পৃথকভাবে বৈঠকে বসার কথা ছিল নির্বাচন কমিশনারের৷ এবং তারপর রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনার পর নতুন নির্ঘন্ট প্রকাশের কথা ছিল৷ কিন্তু ‘সে গুড়ে বালি’৷ সোমবারও কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে বৈঠক করেনি কমিশন৷ রাজ্য সরকারের সঙ্গেও নির্ঘন্ট নিয়ে চূড়ান্তে কোনও আলোচনা হয়নি৷ পূর্বের তিক্ত অভিজ্ঞতা থেকে কোনও হঠকারী সিদ্ধান্ত নয়, অনেক বিচক্ষণতার পরিচয় দিচ্ছেন অমরেন্দ্র কুমার সিং৷ এবার কমিশন সবদিক খতিয়ে দেখেই নতুন করে নির্ঘন্ট প্রকাশ করবে বলে জানা যাচ্ছে৷

কিন্তু এদিন সকাল থেকেই মনোনয়নকে কেন্দ্র করে জেলায় জেলায় অশান্তির খবর আসতে থাকে৷ বিরোধী দলের বিধায়ক থেকে শুরু করে রাজনৈতিক কর্মী-সমর্থক কিংবা সাধারণ মানুষের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে৷ তিন জনের মৃত্যু পর্যন্ত ঘটেছে৷ এমনকী, ভাঙড়ে বিরোধীদের মনোনয়ন দিতে দেওয়া বলে যে অভিযোগ উঠেছে, সেখানে হাইকোর্টের বিচারপতি সুব্রত তালুকদারকে পর্যন্ত হস্তক্ষেপ করতে হয়েছে৷ কমিশনকে ফোনে বিচারপতি তালুকদার বলেন,যারা ভোটে লড়তে ইচ্ছুক, তাদের মনোনয়ন নিশ্চিত করতে হবে৷ অন্যথায়, তা আদালত অবমাননা৷ যা নিয়ে প্রবল দুঃশ্চিন্তায় পড়ে গিয়েছে কমিশন৷ পাশাপাশি, এবার বিরোধীরাপঞ্চায়েত ভোটে নিরপত্তা নিয়ে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছে৷

উল্লখ্য, নির্বাচনের দিনক্ষণ নিয়ে কমিশন এবং রাজ্য সরকার মতানৈক্যে পৌঁছেছে বলে খবর৷ রাজ্য সরকারের ইচ্ছাকেই মান্যতা দিয়ে রমজান মাসের ঠিক আগেই নির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চায় কমিশন৷ ফলে রাজ্য নির্বাচন কমিশন নতুন করে পঞ্চায়েত ভোটের যে নির্ঘন্ট প্রকাশ করতে চলেছে, তাতে আগামী ১৪ ও ১৬ মে ভোট গ্রহণ হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে৷ অর্থাৎ, ১,৩ ও ৫ তারিখের পরিবর্তে এবার ভোট হবে ওই দু’দিন৷ এবং গণনা হতে পারে ১৮ অথবা ১৯ মে৷ অর্থাৎ, তিন দফা থেকে কমিয়ে নতুন নির্ঘন্টে দু’দফায় ভোট হওয়ার সম্ভাবনা৷ আগে গণনার দিন ছিল ৮ মে৷ রাজ্য সরকার অবশ্য জানিয়ে দিয়েছে, এক দফায় ভোট করলেও তাদের আপত্তি নেই৷

পঞ্চায়েত আইন বলছে, মনোনয়নের শেষদিনকে সূচক করে ২১ দিনের আগে ভোট গ্রহণ করা যায় না৷ আবার ৫ দিনের মধ্যে ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হয়৷ সেক্ষেত্রে আদালতে ফের মামলা গড়ালে আরও বিপাকে পড়বে নির্বাচন কমিশন৷ নতুন করে পঞ্চায়েত ভোট ভেস্তে যাওয়ারও সম্ভাবনা থাকবে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here