ডেস্ক: একদিকে ভোটের প্রচারে যেমন নেমে পড়েছেন প্রার্থীরা, অন্যদিকে সব দিক খতিয়ে দেখছে নির্বাচন কমিশন। চালু রাখতে হবে কন্ট্রোল রুম, জনসাধারণের জন্য চালু করতে হবে টোল ফ্রি নম্বর। পাশাপাশি নজর রাখতে হবে বিমানবন্দর, মেট্রো স্টেশন, রেল স্টেশন এবং রাজ্যের সর্বত্র। আয়কর দফতরকে এমনই নির্দেশিকা দেওয়া হল নির্বাচন কমিশনের তরফ থেকে। কোনও ব্যক্তি যদি ব্যাঙ্ক থেকে ১০ লক্ষ টাকার বেশি তোলে তাও খতিয়ে দেখা হবে।

বিষয়টি হল, অনেক ক্ষেত্রে নির্বাচনের সময় হিসাব বহির্ভূতভাবে টাকা তোলার অভিযোগ ওঠে। এমনকি ভোটের সময় টাকা বিলি করে ভোট কেনার অভিযোগও উঠে থাকে। এই বিষয়টির ওপর নজর রাখছে কমিশন। প্রতিটি জায়গায় কন্ট্রোল রুম খুলতে হবে। সেই সঙ্গে টোল ফ্রি নম্বর চালু রাখতে হবে। যাতে কোনোরকম ঘটনা ঘটলে সঙ্গে সঙ্গে পদক্ষেপ নেওয়া যেতে পারে। আয়কর দফতরকে বলা হয়েছে, রাজ্যের প্রতিটি হোটেল, ফার্ম হাউজ, ফিনান্সিয়াল ব্রোকারদের উপর নজর রাখতে হবে। এমনকি যারা কুরিয়র সার্ভিসের মাধ্যমে অর্থ লেনদেন করে তাদের ওপরেও নজর রাখা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, যদি কোনও ব্যক্তি ১০ লক্ষ টাকার বেশি তোলে তাহলে ব্যাঙ্ক তা জানাবে ডিস্ট্রিক্ট ইলেকশন অফিসারকে। ইলেকশন অফিসার তা জানাবেন ইনকাম ট্যাক্স ডিরেক্টরের ওই জেলার নোডাল অফিসারকে। কমিশনের নির্দেশ অনুসারে পশ্চিমবঙ্গে চালু হয়েছে টোল ফ্রি নম্বর। সেটি হল ১৮০০৩৪৫৫৫৪৪। আয়কর দফতরের পক্ষ থেকে দুটি নম্বর দেওয়া হয়েছে, সেই দুটি নম্বর হল- ৬২৮৯৭০২৯২২ এবং ৬২৮৯৭০৪১৪৬। গোটা বিষয়ের ওপর নজরদারি রাখার জন্য ২০০ জনের টিম তৈরি করেছে আয়কর দফতর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here