ডেস্ক: শনিবার দুপুরেই রাজ্য পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিনক্ষন প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন। ১, ৩ ও ৫ মে রাজ্যে তিন দফায় হবে ভোট। এরই মাঝে পঞ্চায়েত ভোটে উপলক্ষ্যে রাজ্য সরকারের কাছে নিজেদের প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছুই জানিয়ে দিল নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশনের তরফে এদিন রাজ্য সরকারের কাছে যা যা চেয়ে পাঠানো হয়েছে তা হল, রাজ্যে ভোট পরিচালনার জন্য ৫৬ হাজার সশস্ত্র বাহিনী দিতে হবে কমিশনকে। একইসঙ্গে ৩৫০ জন পর্যবেক্ষক ও ৩ লক্ষ ভোটকর্মী। এর আগেই অবশ্য রাজ্যে নির্বাচন করানোর জন্য নির্বাচনের খরচ বাবদ রাজ্য সরকারের কাছ থেকে ৩৬০ কোটি টাকা দাবি করেছে নির্বাচন কমিশন। জানা যাচ্ছে, এই বিপুল পরিমান টাকা ও সমস্ত দাবি রাজ্য সরকার মেনে নেবে বলেই জানা যাচ্ছে সরকারি সূত্রে। ভোট ঘোষণার আগে এদিন দুপুরে নবান্নে সরকারি স্তরে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হয়। সেই বৈঠকেই দিনক্ষণ চূড়ান্ত করা হয়৷ বৈঠকের পর রীতি মেনে চিঠি মারফত তা রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দফতরে পাঠানো হয়। এরপর বেলা ৩টের সময় আনুষ্ঠানিকভাবে ভোটের দিনক্ষণ প্রকাশ করে রাজ্য নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচন কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে পঞ্চায়েত ভোট হবে ১, ৩ ও ৫ মে৷ ফলাফল ঘোষণা ৮ মে৷ আগামী ২ এপ্রিল মনোনয়ন পত্র জমা নেওয়া শুরু হবে৷ মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ তারিখ থেকে ৯ এপ্রিল৷ ১৬ এপ্রিল মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষদিন৷ দার্জিলিং বাদ দিয়ে রাজ্যের ২০টি জেলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে৷ গোটা রাজ্যে এবার ভোটারের সংখ্যা ৫ কোটি ৮ লক্ষ৷ মোট পোলিং স্টেশন ৫৮৪৬৭৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here