Home Featured ডিসেম্বরের মধ্যে সবাইকে ভ্যাকসিন দিতে হবে, মধ্যে ‘কিন্তু’ জিইয়ে রাখলেন কর্তা

ডিসেম্বরের মধ্যে সবাইকে ভ্যাকসিন দিতে হবে, মধ্যে ‘কিন্তু’ জিইয়ে রাখলেন কর্তা

0
ডিসেম্বরের মধ্যে সবাইকে ভ্যাকসিন দিতে হবে, মধ্যে ‘কিন্তু’ জিইয়ে রাখলেন কর্তা
Parul

মহানগর ডেস্ক: চলতি বছর থেকে দেশে শুরু হয়েছে ১৮ ঊর্ধ্বে সকলকে ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রক্রিয়া। কিন্তু বিশেষজ্ঞমহল চাইছে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যেই দেশে ১৮ ঊর্ধ্ব সকলকে ভ্যাকসিন যাতে দিয়ে দেওয়া হয়। এই বিষয়টি নিয়ে ন্যাশনাল এক্সপোর্ট গ্রুপ অন ভ্যাকসিন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এর প্রধান ডক্টর এন কে আরোরা বিস্তারিতভাবে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ডিসেম্বরের মধ্যে ১৮ ঊর্ধ্ব সকলকে ভ্যাকসিন প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। আর তার জন্য প্রয়োজন ভ্যাকসিন এর উৎপাদন প্রক্রিয়া বাড়াতে হবে। সঙ্গে দেশের প্রত্যেকটি রাজ্যে ভ্যাকসিন কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়াতে হবে।

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকারে ডক্টর এন কে আরোরা জানিয়েছেন, মে মাসে যেখানে ৫.৬ কোটি ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছিল। জুন-জুলাই মাসে সেটি বৃদ্ধি পেয়েছে। ১০ থেকে ১২ কোটি হয়েছে। আগামী মাসে সেটা আরো বাড়াতে হবে। ১৬ থেকে ১৮ কোটি করতে হবে। এবং সেপ্টেম্বরের মধ্যে ৩০ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ দিয়ে দিতে হবে। ভ্যাকসিন প্রক্রিয়া দ্রুত করার জন্য প্রত্যেকটি রাজ্যকে পদক্ষেপ নিতে হবে। ভ্যাক্সিনেশন কেন্দ্রের সংখ্যা প্রতিটি রাজ্যে বাড়াতে হবে। এটি সবথেকে বড় একটি চ্যালেঞ্জ।

ডক্টর এন কে আরোরা আরও জানিয়েছেন, দেশের সরকারি খাতে ৭৫ হাজার থেকে ১০০ হাজার পর্যন্ত ভ্যাকসিন কেন্দ্র স্থাপন করার লক্ষ্য রয়েছে। তবে সে ক্ষেত্রে দেশের রাজ্যগুলি অনেক পিছিয়ে রয়েছে। তাই ভ্যাকসিন প্রক্রিয়া বাড়ানোর জন্য রাজ্যেকে ভ্যাকসিন কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানোর দিকে নজর দিতে হবে। সম্প্রতি বেশ কিছুদিন ধরে দেশে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা বেশ কিছুটা কম থাকলেও, বিগত তিনদিন ধরে আবারো ঊর্ধ্বমুখী দেশের সংক্রমনের সংখ্যা। চলতি সপ্তাহে ৮ থেকে ১১ টি রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলিতে বৃদ্ধি পেয়েছে সংক্রমনের সংখ্যা। সংক্রমনের সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হ্রাস পাচ্ছে দেশে টিকা দেওয়ার প্রক্রিয়া। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে দেশে ১৮ ঊর্ধ্ব টিকার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হলে দেশে বাড়াতে হবে ভ্যাকসিনের গতি।

সম্প্রতি বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছে যে, আগস্টের শেষ এবং সেপ্টেম্বরের শুরুর মধ্যেই দেশে আছড়ে পড়তে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। দেশে করোনা তৃতীয় ঢেউ প্রতিরোধ করতে একমাত্র প্রয়োজন ভ্যাকসিনের প্রক্রিয়া বাড়াতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here