Home Featured মাত্রাতিরিক্ত জ্বালানির দাম, নৌকো নামিয়ে অভিনব প্রতিবাদ অদিতি মুন্সির

মাত্রাতিরিক্ত জ্বালানির দাম, নৌকো নামিয়ে অভিনব প্রতিবাদ অদিতি মুন্সির

0
মাত্রাতিরিক্ত জ্বালানির দাম, নৌকো নামিয়ে অভিনব প্রতিবাদ অদিতি মুন্সির
Parul

মহানগর ডেস্ক: প্রতিদিন নিয়ম করে দেশ সহ বিভিন্ন রাজ্যে বেড়ে চলেছে পেট্রোপণ্যের দাম। যার ফলে মাথায় হাত পড়েছে মধ্যবিত্তের। বিজেপি বিরোধী বিভিন্ন দলই ইতিমধ্যে বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদের ঝড় তুলেছে। সম্প্রতি তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল যে, ১০ এবং ১১ জুলাই রাজ্যজুড়ে জ্বালানির দাম বৃদ্ধি নিয়ে প্রতিবাদ জানানো হবে। কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে। ঠিক সেই মতই দেখা গিয়েছে যে শনিবার রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। বিভিন্ন জায়গায় করা হয়েছে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি।

রবিবারও তার অন্যথা হলো না। কিন্তু রবিবারে এক অভিনব প্রক্রিয়ায় প্রতিবাদ দেখা গেল। সড়কপথে নৌকা নামিয়ে রান্না করলো তৃণমূল। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সকালের রাজারহাট গোপালপুর বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেসের উদ্যোগে বাগুইহাটি বাসস্ট্যান্ডে বিক্ষোভ কর্মসূচি। সত্যিই কর্মসূচিটি ছিল অভিনব। ভিআইপি রোডের উপর নৌকো রেখে তার উপরে কাঠের জালায় রান্না করা হচ্ছে। খুন্তি হাতে তুলে নিয়েছেন রাজারহাট গোপালপুর বিধানসভার বিধায়ক তথা জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী অদিতি মুন্সি। নিজের হাতে কাঠের জালে তিনি বেগুনি ভাবছেন। সবটাই নৌকার উপরে করা হচ্ছে।

রাজ্যে উত্তরোত্তর বাড়ছে জ্বালানির দাম। যার কারণে কখনো সাইকেল, কখনো গরুর গাড়ি তো কখনো নৌকোকে বেছে নিচ্ছে প্রতিবাদীরা। এই প্রতিবাদের প্রসঙ্গে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার যুব তৃণমূল সভাপতি দেবরাজ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে সারা রাজ্য জুড়ে কেন্দ্রীয় সরকারের নীতির বিরুদ্ধে পথে নেমেছে তৃণমূল। জ্বালানির দাম যদি শীঘ্রই না কমানো হয় তাহলে এর থেকেও বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে তৃণমূল।

উল্টোদিকে শুকনো রাস্তায় নৌকা নামিয়ে রান্না করার এই অভিনব প্রতিবাদকে কটাক্ষ করতে একবারের জন্য পিছপা হয়নি বিজেপি। সায়ন্তন বসু জানিয়েছেন, এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে টেমসের এর জল যেভাবে কলকাতাতে প্লাবিত করছে তাতে এবার থেকে সবাইকে নৌকা চালাতে হবে। তৃণমূল ঠিকই করছে। এটা ভালো। সরকার থেকে এবার সবাইকে নৌকো দেওয়া হোক। ওরা কর্মসূচি করলে দোষ নেই, তখন করোর করোনা থাকে না। বিজেপি কিছু করতে গেলে কোন অনুমতি পাওয়া যায়না। পেট্রোল-ডিজেলের দাম নিয়ে অবশ্যই প্রতিবাদ করুক, তাতে কোন ক্ষতি নেই। কিন্তু রাজ্য সরকার তেলের দামের ৪৩ টাকা করে সেস নেওয়াও যাতে অবিলম্বে কমায়, তাহলেই তো তেলের দাম অনেকটাই কমে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here