নিজস্ব প্রতিবেদক, বর্ধমান: বছর তিনেকের বৈবাহিক সম্পর্ক মধ্যেই ফের নতুন করে প্রেমের সম্পর্কে মেতে ওঠেন গৃহবধূ। সেই অবৈধ প্রেমের এক ভয়াবহ পরিণতি দেখল এলাকাবাসী। প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হলেন গৃহবধূ। বৃহস্পতিবার বর্ধমানের শক্তিগড় ষ্টেশন এলাকা থেকে ওই যুগলের মৃতদেহ উদ্ধার করে রেল পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, আত্মঘাতী দুজনের নাম প্রভাস দাস(২২) ও সুজাতা দাস(২২)। বাড়ি হুগলীর আরামবাগের মইগ্রামে। বছর তিনেক আগে মইগ্রামের যুবক প্রসেনজিৎ দাসের সঙ্গে বর্ধমানের সেহারাবাজারের বাসিন্দা সুজাতার বিয়ে হয়। তবে তাদের এই বৈবাহিক বৈবাহিক সম্পর্কের মাঝে ঢুকে পড়ে তৃতীয় ব্যক্তি। জানা গিয়েছে, বেশ কয়েকমাস ধরে গৃহবধূ সুজাতার সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক গড়ে ওঠে প্রতিবেশী যুবক প্রভাসের সঙ্গে। প্রভাস কলকাতার সিঁথি মোড়ে একটি সোনার দোকানে কাজ করতো। তাদের সম্পর্কের কথা জানাজানি হওয়ার পর, গত ১৮ জুন এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়ে যায় তারা। যদিও পরের দিন সুজাতার বাপের বাড়ির পক্ষ থেকে আরামবাগ থানায় নিখোঁজ সংক্রান্ত অভিযোগ দায়ের করা হয়। এরপর বৃহস্পতিবার সকালে দুইজনের দেহ উদ্ধার করা হয় বর্ধমানের শক্তিগড় ষ্টেশন এলাকা থেকে।

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, বৃহস্পতিবার সাত সকালে ট্রেনের সামনে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে এই দুইজন। পুর ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। একইসঙ্গে বর্ধমান ষ্টেশনের জিআরপি মৃতদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here