ডেস্ক: যত দিন যাচ্ছে ভারতে ভণ্ড বাবার তালিকাটা দীর্ঘ হচ্ছে ততই। সেই তালিকায় এবার নবতম সংযোজন বৃন্দাবন আশ্রমের এক তান্ত্রিক ধর্মগুরু বাবা দ্বারকা দাস। আশ্রমের ভিতরে এক মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে ওই ধর্মগুরুকে ২৫ বছরের সাজা শোনাল স্থানীয় ফার্স্ট ট্র্যাক আদালত। একইসঙ্গে জরিমানা করা হল ২৫ হাজার টাকা। আনাদায়ে আরও ২৭ মাসের কারাদণ্ড।

সূত্রের খবর, গতবছরের জুলাই মাসে নিয়মিত পেটের যন্ত্রনার সুরাহা পেতে ওই বাবার আশ্রমে পৌঁছন এক মহিলা সঙ্গে এসেছিলেন তাঁর স্বামী ও চার বছরের মেয়ে। রাত ১০ টার সময় দুষ্ট শক্তি তাড়ানো হবে বলে ওই মহিলাকে এক একটি ঘরে থাকতে বলে ওই বাবার এক শাগরেদ। মহিলার স্বামীকে ঘরের বাইরে লন্ঠন হাতে দাড় করিয়ে দেওয়া হয়। বলা হয় লন্ঠন নিভে গেলে ঘরে আসতে। অভিযোগ এরপরই দ্বারকা বাবা ঘরের ভিতর ঢুকে ওই মহিলাকে শ্লীলতাহানী ও ধর্ষণ করে। পরদিন সকালে ফের ধর্ষণ করা হয় ওই মহিলাকে। পরে নিজের স্বামীকে সমস্ত ঘটনার কথা খুলে বলেন ওই মহিলা। এরপর তাঁরা ফিরে গেলেও ২২ জুলাই ফের বৃন্দাবনে ওই ভণ্ড বাবার বীরুধে অভিযোগ দায়ের করেন মহিলা। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬, ৫০৬ ও ৪১৭ ধারায় অভিযোগ দায়ের হয় ওই বাবার বিরুদ্ধে। অবশেষে তাঁকে দোষী সাব্যস্ত করে সাজা ঘোষণা করে স্থানীয় ফার্স্ট ট্র্যাক আদালত। ওই অভিযুক্ত বাবাকে ২৫ বছরের কারাদণ্ড এবং ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে আদালত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here