নিজস্ব প্রতিবেদক, মালদা: বরাবরের মতো রবিবারও সে বাড়ি থেকে বাইক নিয়ে চলে গিয়েছিল সোজা ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে। সেখানে অপেক্ষায় ছিল আড়কাঠি, যে ওপার থেকে সঙ্গে করে এনেছিল জাল এদেশি নোট। তার কাছ থেকে সেই জাল এদেশি নোট বাগিয়ে বাবুমশাই বাইকে চেপে ফিরে আসেন শহরে নিজের ডেরায়। এ পর্যন্ত সব কিছুই ঠিক ছিল। খালি চর মারফত জাল নোট এদেশে ঢোকার খবর চলে গিয়েছিল পুলিশের কানে। তারা এটাও জানতে পারে শহরের কুখ্যাত জালনোট কারবারীর হাতেই রয়েছে সেই জাল নোটের বান্ডিল। কিন্তু তাদের কাছে খবর ছিল না কখন কোথায় সেই জাল নোটের হাতবদল ঘটবে। তাই সময়ের অপেক্ষা না করে সেই কারবারীর পিছনেই নিজেদের লোক লাগায় পুলিশ। তাতে ফলও মেলে হাতেনাতে। পুলিশের কাছে খবর আসে শহরের রথবাড়ি এলাকায় সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাঘুরি করতে দেখা যাচ্ছে সেই কারবারীকে। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে পাকড়াও করে পুলিশ। তার কাছ থেকেই পাওয়া যায় জাল ৫ লক্ষ টাকার ভারতীয় জাল নোট। ঘটনাস্থল মালদা জেলার সদর শহর ইংরেজবাজার। রবিবার রাতে সেখানকার রথবাড়ি মোড় থেকে পুলিশ আটক করেছে জেলার কুখ্যাত জাল নোট কারবারী উত্তম মণ্ডলকে। সে বৈষ্ণবনগর থানার দেওনাপুর এলাকার বাসিন্দা। বৈষ্ণবনগর থানা এলাকার সীমান্তবর্তী গ্রাম থেকে ২০০০ টাকার ২৫০টি জাল নোট রবিবার সকালেই সে সংগ্রহ করে তা রাতে মালদায় নিয়ে আসে অন্য কারোর হাতে তুলে দেওয়ার জন্য। কিন্তু পুলিশের তৎপরতায় তার সে পরিকল্পনা ভেস্তে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here