নিজস্ব প্রতিবেদক, হাওড়া: নবান্ন থেকে এক কিমি দূরত্বের মধ্যে ও বি গার্ডেন থানা থেকে একশো মিটারের ভিতরে মেট্রোরেলে চাকরি দেওয়ার নাম করে প্রায় কোটি টাকার প্রতারনার ঘটনায় মঙ্গলবার তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে হাওড়ার আন্দুল রোডে। পুলিশ এই চক্রের দুই পান্ডা সঞ্জয় রায় ও অসিত বিশ্বাস নামে দুই যুবককের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে বলে জানা গিয়েছে। সুত্রের খবর, সঞ্জয় ও অসিত বেলুড়ে ভাড়া থাকে। মঙ্গলবার আন্দুল রোডের লালকুঠি এলাকার নন্দালয় নামের একটি বাড়িতে অফিস খুলে চাকরি প্রার্থীদের কাছ থেকে জন প্রতি আট থেকে দশ লক্ষ টাকা মেট্রোরেলের চাকরি দেবে বলে নিয়েছিল এই দুই যুবক। স্থানীয়দের অভিযোগ এই চক্রের সঙ্গে ওই আবাসনের মালিকও যুক্ত রয়েছে।

মঙ্গলবার ম্যাটাডোরে করে অফিসের মালপত্র নিয়ে চম্পট দেওয়ার সময়ে স্থানীয় যুবকরা গাড়িটিকে আটক করে ও বিষয়টি জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে পারে। পরে তারাই পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে গাড়ি ও মালপত্র আটক করে। জানা গিয়েছে, উনসানির বাসিন্দা রিয়াজুল মল্লিকের কাছ থেকে এগারো লক্ষ টাকা নিয়ে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল এই দুই কীর্তিমান। কিন্তু চাকরি না দিতে পারায় টাকা ধাপে ধাপে ফেরত দেওয়ার কথা বলেছিল সঞ্জয় ও অসিত। হাওড়া থানার সন্ধ্যাবাজারে এদের আরো একটি অফিসে গিয়েছিল রিয়াজুল। সেখান থেকেই সে পুরো বিষয়টি আরো কয়েকজনের কাছ থেকে জানতে পারে ও লিচুবাগানের এক আত্মীয়কে জানায়। বেশ কিছুদিন ধরেই এই অফিসের উপর নজর রাখছিল রিয়াজুলের আত্মীয়ের বন্ধুবান্ধবরা। মঙ্গলবার পাততাড়ি গুটিয়ে পালানোর চেষ্টা করতেই সব প্রকাশ হয়ে যায়। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ অফিস দুটিকে সিল করেছে ও ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে এলাকার বাসিন্দারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here